অনলাই ডেস্ক : করোনার টিকা পেতে তাঁকে চাপ দিচ্ছেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে কর্পোরেট কর্তা-সহ একাধিক হোমরাচোমরা। তার জেরেই ভারতীয় উড়ানে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার আগেই দেশ ছেড়ে ব্রিটেনে পাড়ি জমিয়েছেন টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরামের চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) আদার পুনাওয়ালা। গোটা দেশ যখন করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ভয়ে ঠকঠক করে কাঁপছে, ঠিক সেই সময়েই এমন চাঞ্চল্যকর খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র ‘দ্য টাইমস’।

‘দ্য টাইমস’-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, পুনাওয়লা কোভিশিল্ড টিকার জন্য তাঁকে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কর্তা এবং অন্যান্যরা ফোন করতেন এবং তাঁরা তাড়াতাড়ি টিকা দেওয়ার দাবি জানাতেন। পুনাওয়ালা ফোনে তাদের বলেছেন, ‘‘হুমকি বললে কম বলা হয়। মানুষের আশা এবং আগ্রাসন অভূতপূর্ব। এটা আশ্চর্যজনক। প্রত্যেকেই মনে করছেন, তাঁর টিকা পাওয়া উচিত। তাঁরা এটা বুঝতে চাইছেন না, কেন অন্যদেরও তাঁদের আগে টিকা পাওয়া উচিত।’’ পুনাওয়ালা ওই ব্রিটিশ সংবাদপত্র আরও বলেছেন, ‘‘ওরা বলছে, তুমি যদি টিকা না দাও তা হলে ফল ভাল হবে না … এটা খারাপ ভাষা নয়। কিন্তু বলার ভঙ্গিমাটা খারাপ। ওদের কথা না শুনলে ওরা কী করতে পারে সেটা এর অন্তর্নিহিত অর্থ। এমন হুমকি আসছেই এবং তাদের দাবি না মানা পর্যন্ত কোনও কাজই করতে দিচ্ছে না।’’ সম্প্রতি পুনাওয়ালাকে ওয়াই ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার।

‘দ্য টাইমস’-এর দাবি, পুনাওয়ালা তাঁদের ফোনে আরও জানিয়েছেন যে তিনি ব্রিটেনে কিছু দিন কাটাবেন। এও বলেছেন, ‘‘আমি ওই পরিস্থিতিতে আর ফিরতে চাই না।’’ সেইসঙ্গে তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘সব ভার আমার কাঁধে। কিন্তু আমি একা তা বহন করতে পারব না।’’

পুনাওয়ালা যে আচমকা দেশ ছেড়েছেন এমন দাবি মোটেই করছে না ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমগুলি। তাদের দাবি, অনেক দিন ধরেই ভারত ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন পুনাওয়ালা। লন্ডনের মেফেয়ার এলাকায় ২৫ হাজার স্কোয়ার ফুটের বাড়িও ভাড়া নিয়েছিলেন তিনি। ভারতীয় মুদ্রায় যার ভাড়া সপ্তাহে ৫১ লক্ষ টাকা। আরও আশঙ্কার কথা শুনিয়েছে ‘দ্য টাইমস’। তাদের দাবি, পুনাওয়ালার ব্রিটেন সফরের সঙ্গে আংশিক ভাবে জড়িয়ে রয়েছে বিদেশে করোনার টিকা উৎপাদনের ইচ্ছা। পুনাওয়ালা ওই সংবাদপত্রকে বলেছেন, ‘‘শীঘ্রই এ নিয়ে ঘোষণা করবেন তিনি।’’
– আনন্দবাজার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •