সিবিএন ডেস্ক:
সম্প্রতি বাংলাদেশে অবস্থান করেছেন এমন সকল ব্যক্তিদের সিঙ্গাপুরে প্রবেশ অথবা ট্রানজিট নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশের পাশাপাশি এই নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলংকার ওপরেও। সিঙ্গাপুরের করোনাভাইরাস বিষয়ক মাল্টি-মন্ত্রণালয় টাস্ক ফোর্স শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে।

আগামী ২ মে থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। সিঙ্গাপুরে প্রবেশ অথবা ট্রানজিটের আগে ১৪ দিনের মধ্যে এই চারটি থেকেছেন এমন সকল দীর্ঘমেয়াদি ও স্বল্পমেয়াদী পাসপোর্টধারীদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগ করা হবে।

টাস্ক ফোর্সের উপ-চেয়ারম্যান লরেন্স ওং জানান, যারা ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রবেশের আগাম অনুমোদন পেয়েছেন তাদের ক্ষেত্রেও এই নিয়ম কার্যকর হবে।

আগামী ৩ মে’র মধ্যে এই চারটি দেশ থেকে যেসব যাত্রী সিঙ্গাপুরে আসবেন, তারা ইতোমধ্যে ১৪ দিন বাসায় থাকার নির্দেশনা পেয়েছেন। কিন্তু নতুন নির্দেশনায় বাসায় থাকার এই মেয়াদ আরও সাত দিন বাড়ানো হয়েছে। সিঙ্গাপুরে পৌঁছে তাদের করোনা পরীক্ষা (পিসিআর) করাতে হবে। এছাড়া ১৪ দিন বাসায় অবস্থানের পর এবং ২১ দিন পর্যন্ত অবস্থানের আগে তাদের এই পরীক্ষা আবার করাতে হবে।

ভারতে করোনা পরিস্থিতির অবনতি এবং আশেপাশের দেশগুলোতেও সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান ওং।

যেসব যাত্রীরা ৩ মে থেকে সিঙ্গাপুরে প্রবেশ করবেন তাদের কারোর ১৪ দিনের মধ্যে থাইল্যান্ডে থাকার ইতিহাস থাকলে তাকেও সিঙ্গাপুরে পৌঁছে ১৪ দিন বাসায় থাকতে হবে। বর্তমানে নিজেদের থাকার জায়গাতেই তারা এই কোয়ারেন্টাইন পালন করতে পারবেন। কেউ যদি প্রবেশের আগাম অনুমোদন নিয়ে থাকেন তাকেও এই নিয়ম মানতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •