সিবিএন ডেস্ক: বিএনপির পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী গুম হয়েছে । আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে মোট ৬০১ জন গুম হয়েছে। বিচারবহির্ভূত হত্যা হয়েছে ২ হাজার ৮০১ জনের। শুক্রবার সকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলের গুম হওয়া নেতাকর্মীদের পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ শেষে এসব কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি আরো বলেন, এর জবাব অবশ্যই আওয়ামীকে দিতে হবে। তাদের এসব কর্মকাণ্ডের জবাব গুম হওয়া মানুষগুলোর পরিবার ও জাতির কাছে। এই ধরনের অনুষ্ঠান প্রতিবছর আমাদের আবেগ আপ্লুত করে, ভারাক্রান্ত করেন। আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গত সাত বছর ধরে এই পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করেছেন। আমাদের অঙ্গ সংগঠন ও বিএনপির নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় যত সমস্যাই হোক না কেনো, ঈদের কিছু উপহার প্রদান করে আসছেন। এর আগে প্রতিবছর খালেদা জিয়াকে নিয়ে আপনাদের (গুম শিকার পরিবার) সঙ্গে ইফতার করেছি। আমরা জানি, আপনাদের যে ক্ষতি হয়েছে তা পূরণ হওয়ার নয়।
আমাদের লক্ষ্য গণতান্ত্রিক সমাজ বিনির্মাণ করা। আমাদের যে অধিকার আছে, আওয়ামী লীগ সরকার সম্পূর্ণভাবে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে তা কেড়ে নিয়েছে। সেই শক্তিকে সরিয়ে আমরা সত্যিকার অর্থে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই। ১৯৭৫ সালেও আওয়ামী লীগ ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য আজকের মতো কিশোর-তরুণদের হত্যা করে। জাসদের প্রায় ১৮ হাজার কিশোরকে হত্যা করা হয়েছে। সিরাজ শিকদারের মতো লোকদের পেছন থেকে হত্যা করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ মিডিয়া, সংসদ, নির্বাচন কমিশন তাদের মতো করে দখল করে নিয়েছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এই দেশের ইতিহাস বলে একনায়কতন্ত্র, স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করে মানুষ জয়লাভ করেছে।
আমি, বিশ্বাস করে অবশ্যই আমরা এদের পরাজিত করতে সক্ষম হবো। আমাদের যারা হারিয়ে গেছে, মৃত্যুবরণ করেছে, গুম হয়েছে তাদের রক্ত বৃথা যেতে পারে না।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •