নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন, দলের মধ্যে নতুন করে দলাদলি সৃষ্টি করার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে একটি অপশক্তি। যে অপশক্তি অতীতেও একই কায়দায় দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভাজনের রাজনীতি শুরু করেছিলেন। স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির দোসর বিএনপি-জামায়াতের ইন্ধনে দলের ভেতর ঘাপটি মেরে থাকা খন্দকার মোস্তাকের সেই অনুসারীদের দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা যেভাবে সঠিক জবাব দিয়েছিলেন, ভবিষ্যতেও সেই অপশক্তিকে দেখিয়ে দেবেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।
দলের ভেতর ষড়যন্ত্রকারীদের হুঁশিয়ার করে দিয়ে এমপি জাফর আলম আরো বলেন, সময় থাকতে নিজেদের শুধরিয়ে নেন। তা না হলে কেউই শান্তিতে থাকতে পারবেন না। আগামীতে রাজনৈতিকভাবে বিএনপি-জামায়াত-হেফাজতসহ অপশক্তিকে দমাতে দলের নেতাকর্মীদের অতীতের মতোই ইস্পাত-কঠিন ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। যাতে অতীতের মতো আগুন সন্ত্রাসীদের কর্মকাণ্ড কঠোরভাবে প্রতিহত করা যায়।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক আমি দলের যে কোন প্রয়োজনে নিজেকে সর্বদা বিলীন করে দিতে চাই। যোগ করেন এমপি জাফর আলম।
আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে চকরিয়া উপজেলায় প্রথমবারের মতো লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
স্বাস্থ্যবিধি মেনে বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন বাঙালি স্কুল এন্ড কলেজে আয়োজিত দলের এই কর্মসূচীতে সভাপতিত্ব করেন লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল করিম সেলিম। সাধারণ সম্পাদক খ ম আওরঙ্গজেব বুলেটের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুর রশীদ দুলাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ওয়ালিদ মিল্টন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কাকারা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শওকত ওসমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম, যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অহিদুজ্জামান অহিদ ও তারেকুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সদস্য ও ডুলাহাজারা ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হাসানুল ইসলাম আদর, লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৯ ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগসহ সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ইফতারপূর্ব মোনাজাত পরিচালনা করেন আমজাদিয়া রফিকুল উলুম সিনিয়র মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আ ক ম ছাদেক সাহেব।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ তাঁর ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে দলের চকরিয়া, পেকুয়া ও মাতামুহুরী উপজেলার ২৫টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের আগামী ঈদের বোনাস হিসেবে নগদ টাকা পৌঁছে দেওয়ার ঘোষণা দেন। অনুষ্ঠানে দলের এবং রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয়েও বক্তব্য দেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •