সিবিএন ডেস্ক:
দেশে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্তে বেসরকারিভাবে নমুনা পরীক্ষার ফি কমানোর সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। বর্তমানে এই পরীক্ষার ফি রয়েছে সাড়ে তিন হাজার টাকা। কমিটি এই ফি কমিয়ে দেড় থেকে দুই হাজার টাকার মধ্যে রাখার সুপারিশ জানিয়েছে।

বুধবার রাতে (২৮ এপ্রিল) জাতীয় কারিগরি পরার্মশক কমিটির সভায় এসব সুপারিশ করা হয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। বর্তমানে দেশে কিটের দাম কমে যাওয়ার কারণে বেসরকারি পর্যায়ে নমুনা পরীক্ষা বাড়ানোর জন্য এই দাম পুনর্নির্ধারণের সুপারিশ করেছে পরামর্শক কমিটি।

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লার সভাপতিত্বে ও সদস্যদের উপস্থিতিতে বুধবার রাতে অনুষ্ঠিত কমিটির সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে কিছু সুপারিশ গৃহীত হয় বলে জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমান সময়ে করোনা পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় কিটের দাম দুই হাজার ৭০০ টাকা থেকে তিন হাজার টাকা ছিল। কিন্তু এখন সেই কিট ৮০০ থেকে এক হাজার টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। এ কারণে বেসরকারি পর্যায়ে টেস্টের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য নমুনা পরীক্ষা ফি সবার সঙ্গে আলোচনা করে পুনর্নির্ধারণের বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। সেইসঙ্গে বেসরকারি পর্যায়ে টেস্টের ফি পনেরশ টাকা থেকে দুই হাজার টাকার মধ্যে নির্ধারণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

এতে বলা হয়, দেশের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার বিধি নিষেধ অব্যাহত রেখেছে। এ বিষয়ে কমিটি সন্তোষ প্রকাশ করলেও বিধি-নিষেধ পালনের ক্ষেত্রে আরও কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার কাজ আগের মতো চালিয়ে যেতে হবে বলেও মতামত দেওয়া হয়। ইতোমধ্যে সরকারের কাছে লকডাউন পরবর্তী এক্সিট প্ল্যানের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, যা বাস্তবায়ন খুবই জরুরি বলে জানানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •