সংবাদদাতা:
চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে পূর্বের ঘটনার জের ধরে আবদুর রহমান (৫৫) নামের এক কৃষককে মারধর করে নগদ টাকা ও মোবাইল সেট লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার বিকেলে ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড গোদারফাঁড়ি এলাকায় স্থানীয় জদা ব গোষ্টির একদল সন্ত্রাসী আবদুর রহমানকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা ও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগে জানা গেছে।

এ ঘটনায় জড়িতরা হলেন ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড জয়নগর পাড়ার জালাল ড্রাইভারের পুত্র আবদু রশিদ (২৯), মৃত কবির আহমদের পুত্র বেলাল উদ্দীন (৪০), ড্রাইভার বশিরের পুত্র মোঃ ইকবাল (২৬), মৃত কবির আহমদের পুত্র জালাল আহমদ (৫৮), বশির ড্রাইভারের পুত্র মোঃ লিটন (৩৫), একই ওয়ার্ডের দরগাহ পাড়ার সোলতান আহমদের পুত্র মোঃ মিন্টু (৪৫) ও মৃত লাল মিয়ার পুত্র মোঃ বাবুল(৩০)।

হামলায় গুরুতর আহত আবদুর রহমানকে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এই ঘটনায় গতকাল বুধবার রাতে আবদুর রহমান বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামী করে চকরিয়া থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন এবং এসআই আঃ সায়েমকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, পূর্বেকার ঘটনার জের ধরে কৃষক আবদুর রহমানের উপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করা হয়।

এদিন আবদুর রহমান কামলা নিয়ে গোদারফাঁড়িস্থ তার জমিতে কাজ করছিলেন।

এসময় আবদু রশিদের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী বন্ধুক, লোহার রড, হাতুড়ি, লাঠিসহ দেশিয় অস্ত্র নিয়ে উপর্যুপরি হামলা চালায় এবং নগদ ১০ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট লুট করে নিয়ে যায়।

আহতের শোর চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ঘটনার পর থেকে সন্ত্রাসীরা এলাকায় হাকাবকা করছে। থানায় মামলা করলে অপহরণ ও হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ জুবায়ের ঘটনার তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •