ইমাম খাইর, সিবিএন:
রামুর মিঠাছড়ির চেইন্দা বাজার এলাকা থেকে ১০ হাজার ইয়াবাসহ মো. শাহীন (৪৬) নামের মোটর সাইকেল চালককে আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় ব্যবহারের একটি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে অভিযানটি চালানো হয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

আটক মো. শাহীন রামুর জোয়ারিয়া নালার ৯ নং ওয়ার্ডের চৌকিদারবাড়ির মো. রফিক আহম্মদের ছেলে।

মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ১১টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন র‌্যাব-১৫ এর সহকারি পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী।

তিনি জানান, কতিপয় মাদক কারবারি মোটরসাইকেলযোগে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে উখিয়া হতে কক্সবাজারের দিকে যাচ্ছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপিস্থ চেইন্দা বাজার হাওলা মেডিকো ফার্মেসীর সামনে প্রধান সড়কের উপর বিশেষ চেকপোষ্ট বসিয়ে তল্লাশী অভিযান শুরু করে। তল্লাশীর একপর্যায়ে মোটরসাইকেলটি চেকপোস্টের সামনে পৌঁছলে র‌্যাব সদস্যগণ থামানোর সংকেত দেন। এসময় মোটরসাইকেলে থাকা দুইজন ব্যক্তি পালিয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে মো. শাহীনকে আটক করা হয়। তবে, সঙ্গে থাকা মোঃ আমান উল্লাহ (২৫) নামের আরেকজন পালিয়ে গেছে। সে কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা খরুলিয়ার মো. ইলিয়াছের ছেলে।

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, মো. শাহীনের হাতে থাকা শপিং ব্যাগ তল্লাশী করে ১০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করেছে, পলাতক মোঃ আমান উল্লাহর সহযোগিতায় সে দীর্ঘদিন যাবৎ টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য ইয়াবা সংগ্রহ করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় করে আসছে।

আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তাকে রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। পলাতক আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •