মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম:

দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে কৌশিক বড়ুয়া (২৩) নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা ও ধর্ষিতার স্বজনরা। গত শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার ঢেমশা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। গত রোববার রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে কৌশিককে আসামী করে সাতকানিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারের বিবরণে জানা যায়, শনিবার (২৪ এপ্রিল) বিকালে ধর্ষিতার বাবা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। অসুস্থ পিতাকে নিয়ে ধর্ষিতার মা উপজেলার কেরানীহাটের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য যান। এ সময় ছাত্রী ঘরে একা থাকার সুযোগে ঢেমশা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড বড়ুয়া পাড়ার অভয় বড়ুয়ার ছেলে কৌশিক বড়ুয়া রাত ১১টার দিকে ছাত্রীর ঘরে প্রবেশ করে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষন করে। বিষয়টি ধর্ষিতার প্রতিবেশী জেঠাত ভাই ও পাড়ার অন্যান্য লোকজন টের পেয়ে ঘরে প্রবেশ করে কৌশিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। এজাহার থেকে আরো জানা যায়, বিগত দেড় বছর আগে ছাত্রীটি স্কুলে যাওয়া আসার পথে কৌশিক ছাত্রীটিকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে প্রথমে রাজী না হলেও পরে মানসম্মানের কথা চিন্তা করে ও বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখালে ওই ছাত্রী কৌশিকের সাথে প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। ছাত্রীর পরিবার এ সম্পর্ক থেকে সরে যেতে বললেও তা না শুনে বিয়েসহ নানা প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীর সাথে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় কৌশিক।

সাতকানিয়া থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, গত রোববার রাতে স্কুল ছাত্রীর মায়ের দায়েরকৃত মামলায় ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে সোমবার আদালতে সোপর্দ ও ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •