মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আই.সি.টি) বিষয়ের প্রভাষক আবু ছরওয়ার রানা‘র বিরুদ্ধে ফেসবুকে আইডিতে কুরুচিপূর্ণ আপত্তিকর ভাষায় নোংরা কথায় কিছু সংবাদের নামে কুৎসা রটনায় লিগ্যাল নোটিশ।

(১) আবু নাছের মোঃ হাসান পিতা মোহাম্মদ কাশেম মাতা দিলরুবা রুবি, সাং- গোরকঘাটা, ৭ নং ওয়ার্ড মহেশখালী পৌরসভা, (২) সিরাজুল মোস্তফা রুবেল পিতা রহিম বকসু মাতা মিনুয়ারা বেগম সাং- পূর্ব ফকিরাঘোনা, ওয়ার্ড নং ৯, বড় মহেশখালী, (৩) গাজী আবু তাহের পিতা মনির আহাম্মদ মাতা মৃত মদন সাইর বিবি সাং- পশ্চিম পাড়া ওয়ার্ড নং ০৮, মহেশখালী পৌরসভা, সর্ব উপজেলা মহেশখালী, জেলা কক্সবাজার।
এদের বিরুদ্ধে ফেসবুক আইডিতে কুরুচিপূর্ণ আপত্তিকর ভাষায় নোংরা কথায় কিছু সংবাদের নামে কুৎসা রটনায় মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আই.সি.টি) বিষয়ের প্রভাষক আবু ছরওয়ার রানা আইনজীবির মাধ্যমে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেছেন।
আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখ ফেসবুক আইডিতে আপত্তিকর ভাষায় নোংরা কথায় কিছু সংবাদের নামে কুৎসা রটিয়েছেন।

লিগ্যাল নোটিশের অবিকল কপি।

আমার মক্কেল জনাব আবু ছরওয়ার রানা মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আই.সি.টি) বিষয়ের একজন প্রভাষক হন। একজন পরিশ্রমী সৎ এবং নীতিবান ব্যক্তি হিসেবে তার যথেষ্ঠ সুনাম এবং খ্যাতি রয়েছে।
একজন সম্মানিত শিক্ষকের মান মর্যাদা নিয়ে খেলা করার আগে আপনাদেরও জানা উচিৎ আপনারাও লেখাপড়া করে থাকলে আপনারা কোন শিক্ষকের ছাত্র ছিলেন। তারপরও আপনারা দায়িত্বশীল সাংবাদিক হয়ে থাকলে আপনারা আমার মক্কেলের বক্তব্য নিতে পারতেন। আপনারা ইচ্ছাকৃত ভাবে অপরাধ সুলভ মনোভাব থাকায় দূর্ভাগ্যজনক ভাবে তা নেন নাই /দেন নাই। আপনাদের উক্ত সংবাদের পর আমার মক্কেল খোজ খবর নিয়ে জানতে পেরেছেন যে, যে ছাত্রী বিষয়ে এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অপসংবাদ প্রচার করেছেন সেই ছাত্রী ইতিমধ্যে প্রকৃত অপরাধিদের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দিয়েছেন যাহা নিয়মিত মামলা হিসেবে তদন্তাধীন। কোন নির্যাতিত নারীর নাম ঠিকানা, ছবি প্রকাশ করা নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ১৪ ধারায় শাস্তি যোগ্য অপরাধ। এছাড়া কেউ ইচ্ছাকৃত ভাবে সম্মানহানীর উদ্দেশ্যে কোন সংবাদের নামে অপসংবাদ প্রচার করা হয় তাহলে সেটা তথ্য প্রযুক্তি এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে শাস্তি যোগ্য অপরাধ। আপনারা আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে যথেষ্ঠ সংবাদের নামে অপসংবাদ প্রচার করেছেন যা ইতিমধ্যে আমার মক্কেলের অপুরণীয় মানহানী কারণ হয়েছে। তাই কোন তথ্যের ভিত্তিতে আপনারা আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে এই সংবাদ প্রকাশ করেছেন তার পূর্নাঙ্গ তথ্য দিবেন। এবং ৭ কার্য দিবসের মধ্যে লিখিত জবাব দিবেন অথবা মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করিবেন। অন্যথায় আমার মক্কেল আপনাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন।

 

নিবেদক
মোহাম্মদ আবদুল মন্নান
এডভোকেট
জেলা ও দায়রা জজ আদালত কক্সবাজার। চেম্বারঃ চেম্বার নং-৬৩ জেলা আইনজীবী সমিতি,কক্সবাজার মোবাইলঃ ০১৮১৭-৪৪২২৮০ / ০১৯৭৭-৪৪২২৮০
তারিখঃ ২৪/০৪/২০২১ ইং

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •