অনলাইন ডেস্ক: দ্বিতীয়বার করোনা পরীক্ষাতেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। পরীক্ষার জন্য শনিবার দুপুরে তার গুলশানের বাসা থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। রাতে রিপোর্ট আসে।

রাত ১০টার দিকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসক টিমের প্রধান অধ্যাপক ডা এফ এম সিদ্দিকী ও অধ্যাপক ডা এ জেড এম জাহিদ হোসেন গুলশানের বাসভবনে প্রবেশ করেন। প্রায় আড়াই ঘণ্টা খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে অধ্যাপক ডা এফ এম সিদ্দিকী জানান, খালেদা জিয়ার আজকের (শনিবার) পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। আশা করছি ৪-৫ দিনের মধ্যে নেগেটিভ আসবে। বাসার সবার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ম্যাডামসহ চারজনের পজেটিভ এসেছে। বাকিদের নেগেটিভ রিপোর্ট আসে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। আগের চেয়ে ভালো আছেন। করোনা আক্রান্ত হওয়ায় ১৭ দিন পার হয়ে ১৮ দিন চলছে।

এর আগে গত বুধবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের বাসভবন ফিরোজায় গিয়ে তার (খালেদা জিয়ার) শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন জানিয়েছিলেন, খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্তের ১৪তম দিন বুধবার শেষ হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা অনেকটা উন্নতি হয়েছে। শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ নেই।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার অক্সিজেন স্যাচুরেশন স্বাভাবিক সময়ের মতোই ৯৮-৯৯ সবসময় পাওয়া গেছে। তার খাবারের রুচিও আগের মতো আছে। তার তাপমাত্রা স্বাভাবিক আছে। তার কোনো কফ-কাশি নেই। করোনা সংক্রমণের পর স্বাভাবিকভাবে দুর্বলতা দীর্ঘসময় থাকে। তারপরও খালেদা জিয়ার সেই দুর্বলতা আগের থেকে কমছে।

গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার পর প্রখ্যাত ‘বক্ষব্যাধি ও মেডিসিন’ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এফএম সিদ্দিকীরে নেতৃত্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের টিম গুলশানের বাসায় তার চিকিৎসা শুরু হয়। ‘ফিরোজা’র বাসায় বিএনপি চেয়ারপারসন ছাড়াও আরো ৮ জন করোনায় আক্রান্ত হন।
-যুগান্তর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •