মোঃ আকিব বিন জাকের, মহেশখালী:

কক্সবাজার জেলার মহেশখালী পৌরসভাস্থ লিডারশীপ কলেজের উত্তর পাশের রাস্তার উপর এক কলেজ ছাত্রীকে কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় তুলে নিয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করেছে একদল বখাটে যুবক।

গত ১৯ ই এপ্রিল রাত ৯ টার সময় লিডারশীপ স্কুলের উত্তর পাশের রাস্তা দিয়ে চরপাড়ার চাচার বাড়ি হতে বড় মহেশখালী ইউনিয়নের ফকিরাঘোনা তথা নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে বখাটেদের এই ঘটনার শিকার হয় কলেজ ছাত্রী ।

এ ঘটনায় কলেজ ছাত্রী বাদী হয়ে মহেশখালী থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে ।

থানায় দায়ের করা এজাহার সূত্রে জানা যায়,  বড় মহেশখালীর বঙ্গবন্ধু সরকারী মহিলা কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী  (১৮) ঘটনার দিন  (১৯ এপ্রিল) বিকাল ৫টার সময় গোরকঘাটা চর পাড়াস্থ তার চাচা মো. আনচার উল্লাহর বাড়ী থেকে নিজ বাসায় যাওয়ার পথে পূর্বে উৎপেতে থাকা চরপাড়া এলাকার মো.আনছার উল্লাহর পুত্র মো.তারেক (২২) , গোরকঘাটা সিকদার পাড়া এলাকার মাহাবুব আলমের এর পুত্র মহিউদ্দিন (৩০), চরপাড়া এলাকার রৌশন আলীর পুত্র ছানাউল্লাহ (৩২) সহ অজ্ঞাত নামা আরো ৩/৪ জন বখাটে যুবক কলেজ ছাত্রীকে চলাচলের পথরুদ্ধ করে এবং তাকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে কলেজ ছাত্রীর আর্তচিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসায় কলেজ ছাত্রীকে শ্লীলতাহানী করে পালিয়ে যায় বখাটেরা।
পরে বখাটেদের কবল থেকে স্থানীয় লোকজন কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করে তার নিজ বাড়ীতে পৌছিয়ে দেয়।

কলেজ ছাত্রী (১৮) জানায়, ” ১ নং অভিযুক্ত আসামী বখাটে ছেলে তারেক আমাকে দীর্ঘদিন ধরে তার সহযোগী বখাটেদের নিয়ে কলেজ ও প্রাইভেটে যাওয়া আসার পথে বিভিন্ন অশ্লীল প্রস্তাব সহ উত্যক্ত করে আসছিল। তাদের কু-প্রস্তাবে আমি রাজি না হওয়ায় আমাকে শ্লীলতাহানী এবং অপহরণের চেষ্টা করেছে।”

মামলা দায়েরের পর তার মা বাবা সহ আত্মীয়স্বজনকে মামলা তুলে নেওয়ার জন‍্য বিভিন্ন হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে বলে জানায় কলেজ ছাত্রীর পরিবার।
যার কারণে কলেজ ছাত্রী ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে বলে জানান তারা।

কলেজ ছাত্রীকে আইনগত সহায়তা করায় তার আত্মীয় স্বজনকেও উল্টো মিথ্যা মামলা দায়ের করে হয়রানির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান মামলার বাদি তথা কলেজ ছাত্রী ।

এ বিষয়ে মহেশখালী থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো.আবদুল হাই জানান, কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর বিষয়ে নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে। পরবর্তীতে আসামীদের আইনের আওতায় আনা হবে।
আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে সুষ্টু তদন্ত পূর্বক ন্যায় বিচার কামনা করেছেন কলেজ ছাত্রীর পরিবার।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •