আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

কয়েক মাস আগে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় অ্যান্টি ভাইরাল ওষুধ রেমডিসিভির ব্যবহারের ব্যাপারে সতর্ক করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এবার করোনা চিকিৎসায় ওষুধের তালিকা থেকেই রেমডিসিভিরকে চূড়ান্তভাবে বাতিল করেছে সংস্থাটি।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়, করোনা ওষুধের তালিকা থেকে রেমডিসিভিরকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এখন থেকে এই ওষুধ আর করোনা চিকিৎসায় ব্যবহার করা যাবে না।

সম্প্রতি ভারতের সর্বোচ্চ সরকারি চিকিৎসাকেন্দ্র অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সের (এআইআইএমস) পরিচালক রণদীপ গুলেরিয়াও এ সম্পর্কে সচেতন করেছেন। তিনি বলেছেন, করোনা চিকিৎসায় রেমডিসিভিরের কোনো ভূমিকা নেই। রেমডিসিভির কোনো যাদুকরি ওষুধ নয়। এটি করোনা সারাতে পারে এমন অকাট্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি। করোনায় মৃত্যু কমানোর ক্ষেত্রেও এটি তেমন কার্যকরী কোনো ওষুধ নয়।

বর্তমানে বিশ্বের ৫০টি দেশে করোনা চিকিৎসায় রেমডিসিভির ব্যবহার করা হচ্ছে। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তখন তাার চিকিৎসাতেও এই ওষুধটি ব্যবহার করা হয়েছিল।

ভারতে এই ওষুধটি তৈরির জন্য একাধিক কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেছে রেমডিসিভিরের প্রস্তুতকারক সংস্থা গিলিয়াড। ডা. রেড্ডিজ ল্য়াব, জাইডাস ক্য়াডিলা, সিপলা-র মতো ভারতীয় ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলো ইতোমধ্যে রেমডিসিভিরের জেনেরিক (ভিন্ন নামে একই ওষুধ) তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে। তার মধ্য়েই ডব্লিউএইচও এমন নির্দেশিকা জারি করল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •