আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টেও পৌঁছে গেছে করোনার থাবা। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকার এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই জানানো হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, করোনার লক্ষণ দেখা দেয়ায় এ মাসে তিনজন পর্বতারোহীকে হেলিকপ্টারযোগে বেস ক্যাম্প থেকে নামিয়ে আনা হয়। তাদের মধ্যে গত সপ্তাহে একজনের করোনা শনাক্ত হয়। তাকে কাঠমান্ডুর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এভারেস্ট চড়ার জন্য আরোহীদের বেস ক্যাম্পে প্রায় দুই মাস বাধ্যতামূলকভাবে অবস্থান করতে হয়, যাতে তাদের দেহ উচ্চতার সঙ্গে অভ্যস্ত হতে পারে। একজনের দেহে করোনা পাওয়া যাওয়ায় এখন কর্মকর্তারা সতর্ক থাকছেন, যাতে বাকি আরোহীরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারেন।

করোনার সংক্রমণ রোধ করতে নেপাল সরকার মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব রক্ষা বাধ্যতামূলক করেছে। এছাড়া এভারেস্টের ১৭ হাজার ৬০০ ফুট উচ্চতাতেও একটি অস্থায়ী মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে এভারেস্ট অভিযান অপারেটর মিংমা শেরপা বলেন, ওই ক্যাম্পের অন্যান্য অভিযাত্রীরা তাদের অভিযান বাতিল করবেন না। কেননা, বেস ক্যাম্পে পৌঁছে রণে ভঙ্গ দেয়া অর্থহীন।

প্রসঙ্গত, নেপালে করোনা ছড়িয়ে পড়ার পর গত বছরের ২৪ মার্চ সীমান্ত বন্ধসহ এভারেস্টে আরোহণে বিধিনিষেধ জারি করে দেশটির সরকার। চলতি বছরের মার্চে পর্বতারোহণে বিধিনিষেধ তুলে নেয়া হয়।

নেপালের অভিবাসন বিভাগ জানিয়েছে, চলতি বছরের মার্চ থেকে মধ্য এপ্রিল পর্যন্ত এভারেস্টকেন্দ্রিক প্রায় ১৫ হাজার ভ্রমণকারী নেপালে পৌঁছেছে। এর মধ্যে ৩৬টি দলে ৩৩৮ জনকে পর্বতারোহণের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •