ইফতেখার শাহজীদ, কুতুবদিয়া:

ইয়াবাসহ পুলিশের হাতে আটক হওয়ার ১সপ্তাহ পার হলেও কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ রাজীব খানের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ভাবে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এতে ক্ষুব্ধ  উপজেলা ছাত্রদলের তৃণমূলের নেতা কর্মীরা।

অভিযোগ রয়েছে, ত্যাগী ও পরিচ্ছন্ন ছাত্র নেতাদের বাদ দিয়ে  গঠন করা হয়েছে ওই কমিটি। অছাত্র এবং মাদক ব্যবসায়ীদের নিয়ে গঠিত কমিটি অনুমোদন পাওয়ার পর অনেকে ওই কমিটি থেকে পদত্যাগও করেছেন। ছাত্রদলের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে মাদক সংশ্লিষ্ট এবং অছাত্রদের বাদ দিয়ে কমিটি পুনর্গঠনের দাবী জানিয়েছেন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী দীর্ঘ ৬বছর পর গত ১৫ ফেব্রুয়ারী কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রদলের ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। গঠনের পর থেকেই বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছেনা কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রদলের। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কুতুবদিয়া উপজেলা শাখার যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ রাজীব খান ২ হাজার ইয়াবাসহ গত ১২ এপ্রিল চট্টগ্রাম মহানগরের চকবাজার এলাকা থেকে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে আটক হয়। সে বর্তমানে চট্টগ্রাম কারাগারে কারাভোগ করছে। রাজীব কুতুবদিয়া উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের পুতিন্যার পাড়া এলাকার মোঃ ইউনুছের ছেলে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুতুবদিয়া ছাত্রদলের আহবায়ক মুহাম্মদ মুকাররম বলেন, আটকের বিষয়টি আমরা এখনো নিশ্চিত হতে পারিনি। যাচাই করে সিনিয়রদের সাথে কথা বলে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি শাহাদাত হোসেন রিপন জানান,  মোঃ রাজীব খানের বিরুদ্ধে মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ প্রমাণিত হলে সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •