আলমগীর মানিক, রাঙামাটি
রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলাধীন বাঙ্গালহালিয়ায়তে এক উপজাতীয় গৃহবধুকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে যখম করার মূলহোতা পাহাড়ি যুবক ক্যসুইথুই মারমাকে গ্রেফতার করেছে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ। সে ৩নং বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়নের ডাকবাংলা আগাপাড়া এলাকার বাসিন্দা রেগ্যা মারমার ছেলে।
গত শনিবার (১৭এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টায় একই এলাকার মারমা গৃহবধুকে ধর্ষণের চেষ্ঠা কওে ব্যর্থ হয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছিলো উক্ত যুবক। এই ঘটনায় অভিযুক্তকারীর বিরুদ্ধে ভিকটিমের পরিবার বাদী হয়ে ১৮ এপ্রিল রোববার চন্দ্রঘোনা থানায় মামলা দায়ের করেছিলো। মামলা নং-০৩। তারিখ ধারা: ৩৪১, ৩০৭.৩২৩.৩২৪.৩২৬.৩৭৯.৫০৬/২।
বাঙ্গালহালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ঞোমং মারমা জানান, ঐ এলাকার স্থানীয় যুবক ক্যসুইথুই মারমা গৃহবধুকে একা পেয়ে অর্তকিত ভাবে ধাঁরালো ছুড়ি দিয়ে কোপাতে থাকলে সে আত্মচিৎকার করলে অভিযুক্তকারী গৃহবধুর হাতে থাকা মোবাইল চিনিয়ে নেয় ধাড়ালো ছুরি দিয়ে এলোপাতারি কোপায়া মাথা, গলা, হাতে পায়ে যখম করে পালিয়ে যায়।
স্থানীয়রা গৃহবধুকে উদ্ধার করে প্রথমে চন্দ্রঘোনা মিশন হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় চচট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে প্রেরন করে।
চন্দ্রঘোনা থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানিয়েছেন, ভিকটিম এর বাবা বাদী হয়ে মামলা করার সাথে সাথে রাঙামাটির পুলিশ সুপার এর নির্দেশনায় এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) এর সার্বিক এর তত্বাবধানে ডংনালার পাহাড়ী দুর্গম এলাকায় নিজেই সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে আসামীকে আটক করি। আসামীকে বিচারার্থে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। তিনি জানান, আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার কথা স্বীকার করেছে বলেও জানিয়েছেন ওসি। আসামীর ব্যবহৃত দা ও ভিকটিমের মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •