শাহেদুল ইসলাম মনির ,কুতুবদিয়া:

সড়ক দুর্ঘটনায় খাদ্য ও শ্বাসনালী ক্ষতিগ্রস্ত কামরুলকে (১৯) বাচাঁতে গিয়ে আসুন। সে কুতুবদিয়া উপজেলা কৈবিল ইউনিয়নের পরাণ সিকদার পাড়া গ্রামে বাসিন্দা। সুস্থ স্বাভাবিক ভাবে সে বাঁচতে চায়।

সে ২০১৭ সালে কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং চট্টগ্রাম এমইএস কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন।

২০১৭ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় কামরুলের খাদ্য ও শ্বাসনালী মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে। টিউব দিয়ে তরল খাদ্য গ্রহণ করে এখন জীবন যাপন করছে কামরুল হাসান। দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসায় ৬ বার অপারেশন করা হয় তারপরও সুস্থ হয়নি কামরুল।

কামরুল পিতা মোহাম্মদ হোছাইন চট্টগ্রাম একটি বেসরকারি অফিসে চাকরি করতেন। বয়স্ক হাওয়াতে সে চাকরিও চলে যায়। এখন দশম শ্রেণীতে পড়া নোবায়াত ছোটভাই সামান্য রাজ মিস্ত্রির কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন।

দরিদ্র ছোট ভাইয়ের পক্ষে প্রতিদিন এতো টাকা খরচ করে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এদিকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার উন্নত চিকিৎসা করতে গেলে ভারতের সিএমসি হাসপাতালে পাঠাতে হবে এবং আনুমানিক ৪ লক্ষ টাকা খরচ হবে। কিন্তু কামরুলের দরিদ্র ছোটভাই এর পক্ষে এত টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয়।

অসহায় কামরুলের পিতা-মাতা সমাজের বিত্তবান ও হৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতা ও সাহায্য চেয়েছে  ছেলে জন্য।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : ০১৮৩৯৪২৪৭৩৫ -বিকাশ এবং রকেট/ নগদ নং ০১৮১৭৮৯৪১২৮। এছাড়া আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক চকবাজার শাখা একাউন্ট নং- ১৩৯১১২০০১৪৮০২।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •