মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নে গভীর রাতে বসতঘরে ভাঙচুর ও লুটপাট চালিছে। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে স্থানীয় শান্তিরঘাট নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগী বৃদ্ধ কলেমা খাতুন জানান, নিকটস্থ টুক্কুরাম দাশের ছেলে স্বর্ণ ব্যবসায়ী রাঁধাবাসীর নেতৃত্বে ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা এ ভাঙচুর চালায়। এর আগে বিভিন্ন সময় আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি ৩৭ শতক বাড়িভিটে দখলে নেয়ার চেষ্টা করে। শুধু তাই নয় রাঁধাবাসী আর রচনা বৈদ্যের নেতৃত্বে জনসম্মুখে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। যার ভিডিও ফুটেজ প্রমাণস্বরূপ আমাদের রয়েছে। অথচ এ ঘটনার আগে ও পরে তাদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ যুগ্ন জেলা জজ আদালত কক্সবাজার ৩৬৯/২০২০নং মামলায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ নিষেধাজ্ঞা তোয়াক্কা না করে আইন অমান্যকারী রাঁধাবাসী গং আমাদের ৩৭ শতক বসতভিটে জবরদখল নিতে উঠেপড়ে লেগেছে।
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, ডুলাহাজারা শান্তিরঘাট এলাকার পথের ধারের একটি বসতবাড়ির লোকজনের শোর চিৎকার শুনা যায়। রাত ২টায় ঘটনাস্থলে এসে বসতবাড়ির ঘেরাবেড়া ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এরপর নিকটস্থ কাটাখালী ব্রিজের উপর দিয়ে উত্তর ও পূর্বের সড়ক দিয়ে দুইদল সন্ত্রাসী পালাতে দেখা যায়। ওরা এলাকার ত্রাস সৃষ্টিকারী, অস্ত্র, ডাকাতি ও বিভিন্ন মামলার আসামী বলেও জানা গেছে।
চকরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামরুজ্জামান বলেন, ইতিপূর্বে এ বসতভিটের বিরোধ নিয়ে এএসপি সার্কেল স্যারসহ পরিদর্শন করেছি। তবে ৩৭ শতক এ জায়গায় রাঁধাবাসী গংদের বিরুদ্ধে আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সর্বশেষ ঘটনায় হামলা ও ভাঙচুর বিষয়ে অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নিবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •