মো. নজিবুল ইসলাম

পহেলা বৈশাখ বাঙালির সম্প্রীতির দিন, বাঙালির মহামিলনের দিন। এদিন সমগ্র জাতি জেগে ওঠে নবপ্রাণে নব-অঙ্গীকারে। পহেলা বৈশাখ জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষের অসাম্প্রদায়িক উৎসব। প্রাণে প্রাণ মেলানোর সুযোগ। সকলকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা।

নববর্ষের একটা চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য আছে, আছে কিছু আয়োজন। যেহেতু কৈশোর থেকে থিয়েটারের রির্হাসেল ফ্লোর, নির্মলেন্দু গুনের কবিতা, রবীন্দ্রনাথের গানের সুরে আমাদের বেড়ে উঠা। ছায়ানটের সুর আর মঙ্গল শোভাযাত্রায় হেঁটে নতুন দিনের পথ চেনা। সেই আয়োজনে দুটো বছরের বিরতিতে উৎসবের উত্তাপহীন কেটে গেলো পহেলা বৈশাখ।

করোনায় অনলাইন আয়োজনের মাঝেও স্মৃতি বিস্মৃতির পাতায় মন পড়ে ছিলো পাবলিক লাইব্রেরি দৌলত ময়দানে, দাবা কক্ষে। সাংস্কৃতিক আন্দোলনের সহযাত্রীদের
মনে পড়ছিলো।

দীর্ঘদিন পান্তা-ইলিশের আয়োজন ঘিরে ব্যস্ততার ছন্দপতন ঘটেছে। সারাদিনের গান কবিতা আয়োজনের শিডিউল ঠিক করার ব্যস্ততা নেই। মঙ্গল শোভাযাত্রায় অনেক
দিন পর কর্মজীবনের ব্যস্ততা পেরিয়ে গলা ছেড়ে গান ধরা বন্ধুর দেখা নেই।

এসব আয়োজন, ব্যস্ততা ছাড়া আমরা যারা গান গাই, কবিতা পড়ি তাদের কাছে পহেলা বৈশাখ কেন জানি কোভিড -১৯ উদ্বেগ উৎকন্ঠায় একটা বিষন্ন বছরের বিদায় সেড়ে
কোভিড উৎকন্ঠায় নতুন বছরে সূর্যোদয় দেখে মন গুন গুন করে উঠে “ দ্বার ছুটায়ে বাধা টুটায়ে/ মোরে করো ত্রাণ মোরে করো ত্রাণ।”

কিন্তুু স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্ম শত বর্ষের আয়োজন বিনষ্ট করতে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির আস্ফালন এবং পাকিস্তানবাদের উত্তরাধিকার স্বাধীন বাংলাদেশে বহন করা সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ও মুক্তিযুদ্ধে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে পাওয়া দেশটির অগ্রযাত্রায় বাঁধা পাকিস্তান শাসন শোষণের অন্ধকার যুগে ফিরে যাওয়াই তাদের আসল লক্ষ্য।

সে লক্ষ্যেই তারা ইতোমধ্যে অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তারা দেশের সংবিধান থেকে ধর্মনিরপেক্ষতাকে ছেঁটে দিতে পেরে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলেছে। এ দেশটিকে ধর্মতন্ত্রী রাষ্ট্রে পরিণত করতে তারা তৎপর হয়ে উঠেছে। এই তৎপরতা গত কয়েক বছর ধরে বিশেষ প্রবল রূপ ধারণ করলেও জননেত্রী শেখ হাসিনার সাহসী প্রতিরোধের কাছে পরাজিত হয়েছে। আগামীতেও হবে।

গ্রীষ্মের প্রচণ্ড দাবদাহে শুষ্কপ্রায় প্রকৃতিকে নিবৃত্তি দিতে প্রতিবছর ষড়ঋতুর পরিক্রমায় ঘুরে ঘুরে আসে ষড়ঋতু। প্রকৃতির স্নিগ্ধ সজীব পরশ বুলিয়ে দিয়ে মানুষকে দুঃসহ যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেয় বর্ষা।

জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা বাংলাকে যেকোন অপশক্তির হাত থেকে রক্ষার ব্রত আর প্রাণ প্রকৃতি, পরিবেশ ও সাহিত্য সংস্কৃতি রক্ষায় এই দেশের তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসার আহবান রইলো।

লেখক : সাধারণ সম্পাদক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •