লাইফস্টাইল ডেস্ক:
শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি এর বিকল্প নেই। একমাত্র শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ন্ত থাকলেই এ সময় কোভিড-১৯ এ আক্রান্তরা বেঁচে ফিরতে পারবে। সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় জানা গেছে, কোভিড-১৯ এর চিকিৎসায় ভিটামিন সি এর ভূমিকা অনেক।

ওটাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষক দাবি করেছেন, ভিটামিন সি গুরুতর করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিত্সায়ও সহায়তা করতে পারে। গবেষণাটি নিউট্রিয়েন্টস জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। চিকিৎসাবিজ্ঞানের বেশ কিছু গবেষণা অনুসারে, ভিটামিন সি বিভিন্ন কঠিন রোগ যেমন- নিউমোনিয়া এবং সেপসিসের মতো শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত অসুস্থতা প্রতিরোধ এবং চিকিত্সায় কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ভিটামিন সি তে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, অ্যান্টি-থ্রোমোটিক এবং ইমিউনো-মডুলেটরি থাকায় মারাত্মক শ্বাস-প্রশ্বাসের সংক্রমণের সমস্যা থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং নিউমোনিয়া থেকে দ্রুত পুনরুদ্ধারের জন্য ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরমর্শ দেন চিকিৎসকরা।

ভারতীয় পুষ্টিবিদ রূপালী দত্তের মতে, ‘ভিটামিন সি এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি হলো এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। যা কোভিড-১৯ এর সময়ে অত্যন্ত উপকারী হতে পারে।’

এজন্য এ সময় আপনার ডায়েটে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার রাখা অতীব জরুরি। মনে রাখবেন, ভিটামিন সি নির্দিষ্ট অনুপাতে প্রতিদিন গ্রহণ করতে হয়। কারণ একদিনে আপনি যত বেশিই ভিটামিন সি গ্রহণ করুন না কেন তা কিন্তু শরীরে থাকে না। এজন্য প্রতিদিনই ভিটামিন সি গ্রহণ করতে হবে। জেনে নিন এ সময় কোন কোন ফলগুলো বেশি করে খাবেন-

>> বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন, প্রতিদিন একটি করে লেবু বা কমলা খেলে আপনার প্রতিদিনের ভিটামিন সি েএর চাহিদা পূরণ হবে।

>> টমেটো এ সময় বাজারে সহজলভ্য। সালাদ বা তরকারিতে টমেটো প্রায় সময়ই খেয়ে থাকেন। এতেও পর্যাপ্ত ভিটামিন সি আছে। নিয়মিত টমেটো খাবারে রাখতে পারেন।

>> সব খাবারের সঙ্গেই আমরা কমবেশি মরিচ খেয়ে থাকি। এ সময় বেল পেপার খেতে পারেন। এতে প্রচুর ভিটামিন সি আছে।

>> পেয়ারা বাজারে সহজলভ্য। পর্যাপ্ত ভিটামিন সি থাতে পেয়ারায়। প্রতিদিন মাঝারি আকৃতির একটি করে পেয়ারা খেতে পারেন এ সময়।

>> একটি পেয়ারার চেয়েও ৭০ গুণ বেশি ভিটামিন সি থাকে আমলকি। ছোট্ট হলেও এর উপকারিতা অনেক। এ সময় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে নিয়মিত আমলকি খেতে পারেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •