ছাত্রলীগের বিক্ষোভ, জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে আল্টিমেটাম

আবদুল মজিদ ,চকরিয়া:

চকরিয়া পৌর এলাকার থানা রাস্তার মাথায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: মারুফকে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা মোটর সাইকেল গতিরোধ করে পূর্বশত্রুতার আক্রোশে পূর্বপরিকল্পিতভাবে প্রকাশ্য দিবালোকে প্রাণে হত্যার চেষ্টায় হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। ছিনিয়ে নিয়ে গেছে ব্যবহৃত মোটর সাইকেল, মোবাইল ও নগদ টাকা। ৯এপ্রিল বিকাল ৫টার দিকে ফাঁসিয়াখালীর নিজবাড়ি হতে মোটর সাইকেল চালিয়ে সবুজবাগ বাসায় আসার পথে থানার রাস্তার মাথায় ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এঘটনায় উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা পৌর শহরে দফায় দফায় বিক্ষোভ করে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন। হামলার শিকার ছাত্রনেতা মো: মারুফ চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কিছমত পাড়া গ্রামের মাষ্টার আবুল কাশেমের পুত্র।

এঘটনায় ছাত্রলীগ নেতার বড় ভাই সাংবাদিক আবুল মনসুর মোহাম্মদ মহসিন (৩৮) বাদী হয়ে এদিন রাতেই থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন। এতে আসামী করা হয়েছে। ফাসিয়াখালী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আজম উল্লাহ পাড়ার মো: আরফাত (২৫) পিতা: অজ্ঞাত, চকরিয়া পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ড মাষ্টার পাড়ার বদিউজ্জামানের পুত্র ইমন (২৪), মো: হানিফ (২৪) পিতা: অজ্ঞাত, আবদু শুকুরের পুত্র এজাজুল (২৪), মোজাফফরের পুত্র মো: এরফান (২৫)সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬জন সন্ত্রাসীকে।

বাদীর দায়েরকৃত এজাহারে জানান, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: মারুফ ৯এপ্রিল’২১ইং বিকাল আনুমানিক ৫ ঘটিকার দিকে ফাঁসিয়াখালীর নিজ বাড়ি থেকে মোটর সাইকেল যোগে সবুজ বাগ আবাসিক এলাকাস্থ বড় ভাইয়ের ভাড়াবাসায় ফিরছিলেন। হঠাৎ পূর্বশত্রুতার আক্রোশে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে অভিযুক্ত টোকাই সন্ত্রাসীরা আরো অজ্ঞাতনামা ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে চকরিয়া পৌর এলাকাধীন চকরিয়া থানা রাস্তার মাথায় মোটর সাইকেল গতিরোধ করে হাতে লোহার রড, হাতুড়ী,লাঠি-সোটা এবং দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমণ করে মাথায়, দুই হাতে, দুই রানে পর পর আঘাত গুরুতর আহত করে। এসময় হামলাকারীরা তার দুইটি স্কীন টার্চ মোবাইল (১টি আই ফোন, অপরটি ভিভু মোবাইল সেট) এবং পেন্টের পকেটে থাকা নগদ ১৫,৫০০ টাকা ও তাহার ব্যবহারের মোটর সাইকেলটি বলপূর্বক ছিনাইয়া নিয়ে যায়।তার শোর চিৎকারে পথচারী লোকজন এগিয়ে গিয়ে তাকে নিশ্চিত প্রাণ হত্যার পরিকল্পনা থেকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করান।

এদিকে, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো: মারুফের উপর হামলার ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে সন্ধ্যা ৭টায় চকরিয়া মহাসড়কে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করেছেন চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাঙ্গনে তাৎক্ষনিক সংবাদ সম্মেলন করে হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবী জানান। এসময় বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকিত হোসেন সজিব ও পৌরসভা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা পারভেজ।

অপরদিকে, ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, সহসভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, যুগ্ম সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শহিদ, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কচির, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন ও সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল। নেতৃবৃন্দরা ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলায় জড়িতদের গ্রেফতার পূর্বক শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনের নিকট আহবান জানান।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: মারুফের উপর হামলার ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনার বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতার বড় ভাই আবুল মনছুর মোহাম্মদ মহসিন বাদী একটি এজাহার দিয়েছেন। তাও তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •