এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া:
সারাদেশের সঙ্গে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালেও করোনা ভেকসিনের দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সকাল থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম চলছে। এদিন শুধু তাদেরকেই টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হচ্ছে, যাদের প্রথম ডোজ নেওয়ার ৮ সপ্তাহ পূরণ হয়েছে এবং দ্বিতীয় ডোজের জন্য এসএমএস পেয়েছেন। অন্যদিকে এখন পর্যন্ত যারা টিকা নেননি তাদের প্রথম ডোজ দেওয়ার কার্যক্রমও চলছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সুত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সকাল থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজের টিকা নেন ১১১ জন ব্যক্তি। তাদের মধ্যে টিকা নিয়েছেন চকরিয়া পৌরসভার বর্তমান মেয়র আলমগীর চৌধুরী ছাড়াও সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, শিক্ষক, গণমাধ্যমকর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণীপেশার লোকজন।

তবে, প্রথম ডোজের টিকা নেওয়া প্রায় সবার কাছে এসএমএসের মাধ্যমে দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার তারিখ ও কেন্দ্র জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কোনো কারণে কেউ যদি প্রথম ডোজ নেওয়ার পরও দ্বিতীয় ডোজের সময় ও কেন্দ্রের তথ্য এসএমএসে না পেয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে প্রথম ডোজ নেওয়ার ঠিক দুই মাস পর যে কেন্দ্রে টিকা নিয়েছিল ওই কেন্দ্রে গিয়ে টিকা কার্ড দেখিয়ে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করতে হবে এমন তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে করোনা টিকা কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে প্রথম ডোজের টিকা নেন, কক্সবাজার-১ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মোহাম্মদুল হক, চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক এমআর মাহমুদসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার নাগরিকরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •