প্রেস বিজ্ঞপ্তি
মহেশখালীতে আওয়ামীলীগ কার্যালয় ভাংচুর, বঙ্গবন্ধুর ছবি অবমাননা এবং সে ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিরীহ আলেম-ওলামা ও ধর্মপ্রাণ মানুষকে হয়রানীর ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা আমীর মাওলানা মুহাম্মদ মুসলিম, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহসহ নেতৃবৃন্দ।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, যে বা যারাই করুক; একটি দলীয় অফিস ভাংচুর ও বঙ্গবন্ধুর ছবির অবমাননা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ও গর্হিত কাজ। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এরকম কোন সহিংস তৎপরতায় বিশ্বাসী নয়। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। তবে আমরা একথাও স্পষ্টভাবে জানাতে চাই যে, মহেশখালীতে হেফাজতে ইসলাম ঘোষিত হরতাল ও বিক্ষোভ কর্মসূচি যথারীতি শান্তিপূর্ণভাবেই পালিত হয়েছে। কোনরূপ সহিংসতা বা বিশৃঙ্খলা হয়নি। এমতাবস্থায় যে দিন কোন কর্মসূচিই ছিলো না সেই ৩ এপ্রিল গভীর রাতে সেখানে হেফাজতের নামে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ কোনভাবেই বোধগম্য নয়। শান্তিকামী, সর্ববৃহৎ এ দ্বীনি সংগঠনের ভাবমর্যাদাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কোন কুচক্রী মহল এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। তাই সুষ্ঠু তদন্ত ছাড়া নির্বিচারে নিরীহ আলেম-ওলামা ও তৌহিদী জনতাকে গ্রেফতার -হয়রানী তীব্র নিন্দাজনক। আমরা উক্ত সহিংস ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই, সেই সাথে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোন কোন নিরপরাধ, নিরীহ ওলামায়েকেরাম ও ধর্মপ্রাণ মানুষ যাতে হয়রানীর শিকার না হয় সে বিষয়টিও লক্ষ্য রাখার জন্যও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •