অনলাইন ডেস্ক: সুনামগঞ্জের শাল্লায় হিন্দু-অধ্যুষিত গ্রামে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার দায়ে শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

তার স্থলে সুনামগঞ্জ মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. নূর আলমকে শাল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ পদে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে শাল্লা থানা ওসি নাজমুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছিল।

সিলেট পুলিশ রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, হিন্দু অধ্যুষিত গ্রামে হামলার ঘটনায় শাল্লার থানার ওসির দায়িত্বে অবহেলার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এ জন্য ওসি নাজমুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে বরিশাল রেঞ্জে যুক্ত হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ মার্চ শাল্লার পাশের দিরাইয়ে সমাবেশ করে হেফাজতে ইসলাম। সংগঠনটির যুগ্ন-মহাসচিব মামুনুল হক ওই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন। পরদিনই নোয়াগাঁও গ্রামের এক তরুণ মামুনুল হককে কটাক্ষ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন।

মঙ্গলবার রাত থেকেই ওই স্ট্যাটাস নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। ওইদিন রাতেই ফেসবুকে পোস্ট দেয়া তরুণকে পুলিশের হাতে তুলে দেন স্থানীয়রা।

বুধবার সকালে দা-লাঠিসহ নোয়াগাঁও গ্রামে মিছিল নিয়ে এসে ৮৭টি হিন্দু বাড়ি ভাঙচুরে ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মোট চারটি মামলা হয়েছে। একটি মামলার প্রধান আসামি যুবলীগ নেতা শহিদুল ইসলামকে মৌলভীবাজার থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। -যুগান্তর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •