স্পোর্টস ডেস্ক:
রাতে লিভারপুলের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ। এর মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে জোর ধাক্কা খেলো জিদানের দল।

কারণ করোনা পজিটিভ হওয়ায় ছিটকে গেছেন দলটির সেন্টার-ব্যাক রাফায়েল ভারানে।

ইনজুরির কারণে আগেই ছিটকে গেছেন রিয়াল অধিনায়ক ও রক্ষণের মূল অস্ত্র সার্জিও রামোস। এবার ভারানেও ছিটকে যাওয়ায় বড় দুশ্চিন্তা ভর করেছে রিয়াল শিবির। এরপর শনিবার বার্সেলোনার বিপক্ষে ঘরের মাঠ আলফ্রেদো দি স্তেফানোয় এল ক্লাসিকো এবং ১৪ এপ্রিল অ্যানফিল্ডে লিভারপুলের বিপক্ষে শেষ আটের দ্বিতীয় লেগেও মাঠে নামা হবে না ফরাসি ডিফেন্ডারের।

করোনা পজিটিভ ভারানে এরইমধ্যে আইসোলেশনে চলে গেছেন এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন। সোমবার রিয়ালের দলীয় অনুশীলনেও উপস্থিত ছিলেন না তিনি। ওই সময় উপসর্গ নিয়ে করোনা পরীক্ষা করান তিনি। এরপর মঙ্গলবার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

চলতি মৌসুমে এখন পর্যন্ত মাত্র ৩ ম্যাচ মিস করা ভারানে রিয়ালের সাম্প্রতিক ফর্মের পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছেন। এখন তিনি না থাকায় জিদানের হাতে নাচো ফার্নান্দেস কিংবা এদের মিলিতাওকে সেন্টার-ব্যাক হিসেবে মাঠে নামানো ছাড়া আর কোনো উপায় রইলো না। এর মধ্যে নাচো আবার এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়া থেকে মাত্র এক হলুদ হলুদ কার্ড দূরে।

এই নিয়ে রিয়ালের মূল একাদশের ৪ জন লিভারপুলের বিপক্ষে প্রথম লেগের ম্যাচ থেকে ছিটকে গেলেন। ভারানের আগে ইনজুরির কারণে খেলতে পারবেন না ইডেন হ্যাজার্ড, দানি কারভাহাল এবং রামোস। আর মিলিতাও, হ্যাজার্ড, কাসেমিরো, লুকা জোভিচ এবং নাচোর পর রিয়ালের ষষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে করোনায় আক্রান্ত হলেন ভারানে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •