বার্তা পরিবেশক:

মহেশখালীর কালারমার ছড়ায় হেফাজত ইস্যু ও জামায়ত-বিএনপির ষড়যন্ত্র মোকাবেলা সহ আলেমদের সুনাম রক্ষা করতে ও কালারমার ছড়াসহ এলাকার পরিবেশ শান্ত বজায় রাখতে বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসার ইমাম-মুয়াজ্জিন ও আলেম সমাজের নিয়ে এক মতবিনিময় সভা করেছেন চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ।
সোমবার( ৫ এপ্রিল) বিকালে কালারমার ছড়া ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত মতবিনিময় সভায় হেফাজতসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বক্তব্যেকালে ওলামা ঐক্য পরিষদের সভাপতি মৌং মুফতি সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা দেশদ্রোহী কোন ধরনের কাজে জড়িত ছিলাম না ভবিষ্যতেও থাকব না । বর্তমানে যারা বিভিন্ন অনৈতিক কাজ করে যাচ্ছে, তারা আমাদের দলের কেউ নয়। তারা নিজের সুবিধা আদায়ের লক্ষ্যে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে যাচ্ছে। এই উদ্দেশ্য তাদের সফল হবে না। আমরা আলেম সমাজ ঐক্যবদ্ধ হয়ে সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করব।

ঝাপুয়া আল-জামেয়াতুল আশ্রাফিয়া মাদ্রাসার সহকারি পরিচালক মাওলানা মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, আমরা শান্তিতে বিশ্বাসী, আমরাও চাই আমাদের এলাকায় বা দেশে শান্তি বিরাজ থাকুক।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্ত্যবে কালারমার ছড়ার ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ বলেন, আমার ইউনিয়নের মানুষ বর্তমান শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করে যাচ্ছেন। তাই ঢাকার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার ইউনিয়নে যে অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি ঘটেছে তার জন্য আমি আন্তরিক দুঃখ প্রকাশ করছি। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে যারা উস্কে দিয়ে বিভিন্ন ভাবে অনৈতিক সুবিধা আদায়ের লক্ষ্যে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করেছেন তাঁরাই প্রকৃত দেশ ও জাতির শত্রু। এছাড়াও ২০১৮ সালের ২০ অক্টোবর বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খান কামাল এর উপস্থিতিতে র‌্যাবের মাধ্যমে মহেশখালী-কুতুবদিয়ার ৪৩ জলদস্যু আত্মসমর্পণের পর ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যায় অনেক শীর্ষ দস্যু ও অস্ত্র কারিগর কালারমারছড়ার ইউনিয়ন পরিষদের মাঠে আত্নসমর্পন করেন। কালারমারছড়ায় হেফাজতের নাম ব্যবহার করে হঠ্যাৎ দাগি অস্ত্রদারীরা সন্ত্রাসী কায়দায় মিছিল বের করে কালারমারছড়ার শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে অশান্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সেই রকম ব্যক্তি থেকে সবাইকে দূরে থেকে এলাকার শান্তি রক্ষার্থে সবাইকে সচেতন হওয়ার জন্য আহবান করেছেন তিনি । সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোমল প্রাণ কোরআনের পাখিদের পথে নামিয়ে না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। এছাড়াও যারা পবিত্র ধর্মকে ব্যবহার করে স্বার্থ উদ্ধারের জন্য লেলিয়ে পড়েছে তাঁদেরকে তিনি সতর্ক হয়ে, সঠিক ইসলামের পথ অনুসরণ করে দেশদ্রোহী কাজ থেকে ভিতর থাকতে অনুরোধ করেন।
দেশের এই ক্লান্তিলগ্নে, সবাইকে শান্তিপূর্ণ পরিবেশের মধ্যে দিয়ে রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকান্ড থেকে বিরত থেকে, করোনার স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।
এসময় উপস্থিতি ছিলেন, ঝাপুয়া মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা ইয়াহিয়া, সিরাতুম মুস্তাকিম মাদ্রাসার প্রধান পরিচালক মাওলানা মাহবুব আলম, উত্তর নলবিলা ইয়াহিয়া উলুম মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম,সোনারপাড়া শরিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার মাওলানা নুরুল আবছার, কালারমারছড়া আদর্শ দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা ইব্রাহীম, আধাঁর ঘোনা বালিকা মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা সোলায়মান সাহেব, চিকনীপাড়া তা’লিমুল কোরআন নূরানী মাদ্রাসার মাওলানা হাফেজ আবদুল গফুরসহ বিভিন্ন এলাকার আলেম,ইমাম-মুয়াজ্জিন সহ ধর্মপ্রাণ মানুষেরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •