এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
কক্সবাজারের চকরিয়ায় করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে গণপরিহণ ও বিপনী বিতানে মাস্ক ব্যবহার না করার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলার দায়ে এবং মাস্ক পরিধান না করার অপরাধে বিভিন্ন ব্যাক্তি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ১৬টি মামলায় ৩৪ জনকে দন্ডিত করে ৫ হাজার ৯শত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

শনিবার (৩এপ্রিল) বিকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চকরিয়া বাস টার্মিনাল ও পৌর শহরের বিপনী বিতানসহ বিভিন্ন পয়েন্ট এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ।

অভিযান ব্যাপারে জানতে চাইলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশব্যাপী সংক্রমণের প্রকোপ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। করোনা সংক্রমণের হার রোধকল্পে সরকার ইতিমধ্যে বিভিন্ন নির্দেশনা জারি করেছে।সেই প্রেক্ষিতে সংক্রমণের হার রোধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ এর আলোকে চকরিয়া পৌরসভা এলাকায় করোনা প্রতিরোধে জোর তৎপরতা চালিয়ে বিভিন্ন গণপরিবহন ধারণ ক্ষমতার ৫০ভাগ যাত্রী নিয়ে চলাচলা করছে কিনা তা মনিটরিং করতে অভিযান পরিচালিত হয়। এছাড়াও মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে জনগণকে সচেতন করতে লিফলেট বিতরণ পাশাপাশি বিভিন্ন বিপনী বিতানে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়।

তিনি আরও বলেন, করোনা সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে পথচারী, ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে মাস্ক পরিধানে উৎসাহিত করা হয়।

এ সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার না করার অপরাধে ১৬টি মামলায় পথচারী ব্যাক্তি ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৩৪ ব্যক্তিকে ৫ হাজার ৯শত টাকা অর্থদন্ড আদায় করা হয়। কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে হলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে, মাস্ক পরিধান করতে ও করোনার সংক্রমন রোধে নিজে সুস্থ থাকুন, পরিবার এবং সমাজকেও সুস্থ রাখতে সহযোগিতা করুন। প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান পরিচালনা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •