সোয়েব সাঈদ, রামু
রামু শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে তারুণ্যের জয়ে সেমিফাইনালে উঠেছে, পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি। শনিবার (৩ এপ্রিল) বিকাল ৪ টায় রামু ষ্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টুর্ণামেন্টের দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে তারুণ্যে উদ্দীপ্ত ‘পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’র কাছে ২-০ গোলে হেরেছে স্বাগতিক ‘রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার’। খেলায় ম্যান অবদ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন, দুইটি গোলদাতা ‘পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’র স্ট্রাইকার মোহাম্মদ রাশেদ (জাসি নং ১০)। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এর প্রধান পৃষ্ঠপোষকতায় রামুতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে, শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট।
রামুতে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফইনাল খেলায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, রামু উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি ওসমান সরওয়ার মামুন। রামু শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২১ পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি তরুপ বড়ুয়া এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।
টুর্ণামেন্ট পরিচালনা কমিটির কর্মকর্তা সাবেক ফুটবলার শামশুল আলম ও জিটু বড়ুয়া জানান, রামুতে সাবেক ফুটবলারদের সার্বিক পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট। শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে টুর্ণামেন্টের দশম দিনের খেলা। অষ্টম দিনেই শেষ হয়েছে প্রথম রাউন্ডের খেলা। আজ শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় খেলা। দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালের তারুণ্যময় উদ্দীপ্ত খেলায় ভালো খেলেই ২-০ গোলে বিজয়ী হয়েছে, পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি।
খেলার নির্ধারিত সময়ের প্রথমার্ধের ৮ মিনিটে অভিজ্ঞ স্টাইকার মোহাম্মদ রাশেদ গোল করে ‘পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’কে ১-০ গোলে এগিয়ে নেয়। পেকুয়া দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড় মোহাম্মদ রাশেদ দ্বিতীয়ার্ধের ২৯ মিনিটে আবারও গোল করে, ‘পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’কে জয়ের পথে এগিয়ে নেয়। দুইজন বিদেশী খেলোয়াড় নিয়ে গঠিত ‘রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার’ বিপক্ষ দলের আক্রমণ প্রতিহত করতে মরিয়া হয়ে উঠে। তারুণ্যের উদ্দীপ্ত ‘পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’ দলীয় সমঝোতায় প্রতিপক্ষ দলকে আক্রমণের পর আক্রমণে কোনঠাসা করে ফেলে। রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টারের খেলোয়াড়রা দক্ষতার সাথে বিপক্ষ দলের আক্রমণ প্রতিহত করার চেষ্টা চালায়। রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টারের দুই বিদেশী খেলোয়াড় খেলায় কোন নৈপুণ্যতা দেখাতে পারেননি। দর্শকদের অভিমত ওই দুই বিদেশী খেলোয়াড়ের অদক্ষতার কারণেই পরাজিত হয়েছে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার। পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি ২-০ গোলে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টারকে পরাজিত করে, সেমি ফাইনালে প্রবেশ করে। সেমিফাইনালে চকরিয়া শেখ জামাল ক্লাবের মুখোমুখি হবে পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি।
খেলা পরিচালনায় সাইফুল ইসলাম রেফারী, সুমন দে, বোরহান উদ্দিন সহকারি রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন। হলুদ কার্ড: পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি’র রিদোয়ান, সালাহ উদ্দিন ও রাশেদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, সুশান্ত পাল বাচ্চু ও ওমর ফারুক মাসুম। খেলায় ধারাভাষ্যে ছিলেন, বেলাল আজম হেলালী।
পেকুয়া সদর ফুটবল একাডেমি: কুতুব উদ্দীন (গোলরক্ষক), মোহাম্মদ রাশেদ (অধিনায়ক), রাহুল, সার্জেল খান, সালাহ উদ্দিন, আমজাদ, মহিউদ্দিন, হাসান, ফোরকান, রিদোয়ান, রাজু। অতিরিক্ত খেলোয়াড়: রিফাত, সোহাগ, শাওন।
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার: সাইফুল ইসলাম (গোলরক্ষক), টিপু বড়ুয়া (অধিনায়ক), জমির উদ্দিন, জনসন (বিদেশী খেলোয়াড়), জমির, ইয়াছিন, মুকুট বড়ুয়া, আরিফ, নুরুল কবির, সেগু (বিদেশী খেলোয়াড়), রিপন। অতিরিক্ত খেলোয়াড়: রিদোয়ান, মাসুদ, জমির-২, তাসিফ, রনি, দেলোয়ার।
রামু শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট পরিচালনা কমিটির সভাপতি ছিদ্দিক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক সুপন বড়ুয়া শিপন জানান, করোনা মহামারির কারণে সোমবার থেকে সারাদেশে লকডাউন শুরু হচ্ছে। সরকার ঘোষিত সিদ্ধান্তের কারণে স্থগিত করা হয়েছে, কোয়ার্টার ফাইনালের তৃতীয় ও চতুর্থ খেলা, সেমিফাইনাল ও ফাইনাল খেলা। দেশের পরিস্থিতির বিবেচনা করে, ঈদুল ফিতরের পরে টুর্ণামেন্টের ওই খেলাগুলোর তারিখ ঘোষনা করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •