মোঃ রাসেল ইসলাম, বেনাপোল : যশোরের শার্শা থানার অন্তর্গত শরিফ পুর গ্রামে দুটি গোয়াল ঘরে আগুন লেগে ১শত ১৭টি গৃহপালিত প্রাণীর মৃত্যু হয়েছে। সেই সাথে শেষ হয়ে গেছে হতদরিদ্র দিনমজুর একটি পরিবারের তিল তিল করে গড়ে তোলা স্বপ্ন।

এ সময় গরু ছাগল হাস মুরগী সহ বিভিন্ন গৃহপালিত প্রানীদেরকে আগুন থেকে বাঁচানোর জন্য বাড়ির মালিক মকবুল হোসেন গোয়াল ঘরে প্রবেশ করলে তার শরীরের ২০ শতাংশ পুড়ে গিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন। আহত মকবুল ওই গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে।

গত কাল বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) দিবাগত রাত আনুমানিক ৩টার সময় মশার কয়েল থেকে এই আগুনের সূত্রপাত ঘটে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। এসময় তারা বলেন, ভয়াবহ এই আগুনের কারনে ছাগল ৯টি, হাস ৪৪টি, মুগরী ৩০টি, কবুতার ৩০টি, গরু ১টি, রাজা হাস ৬টি এবং ৭টি পাতিহাস পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সব মিলিয়ে আনুমানিক তিন লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

এসময় আহত মকবুল হোসেনকে উদ্ধার করে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

স্থানীয় বাসিন্দা রবিউল ইসলাম জানান, রাতে মশার কয়েল থেকে গোয়াল ঘরে আগুন লাগে। আগুনে মকবুলের তিন লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আগুন দেখে মকবুল নিজে গোয়াল ঘরে ঢুকে প্রাণীদের বাঁচাতে গেলে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গা পুড়ে যায়। আহত মকবুলকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তারের পরামর্শে তাকে যশোর হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •