ইমাম খাইর, সিবিএনঃ

করোনাকালে সরকারি আদেশ মতে ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির সুযোগের অপব্যবহার করছে যাত্রীবাহী বাসগুলো। বিশেষ করে, লোকাল বাসগুলোর কঠিন চিত্র। প্রতিটা গাড়ি আসনের বাইরে ঠিকই যাত্রী নিচ্ছে। আবার ভাড়াও অতিরিক্ত গুনতে হচ্ছে যাত্রীদের। শারীরিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি মানতে সরকারি যে নির্দেশনা আছে তারও বালাই নেই পরিবহনগুলোতে।

শুক্রবার সকালে চকরিয়া যাচ্ছিলেন মিনহাজুল কবির নামক যুবক। বাসটার্মিনাল থেকে ১০০ টাকা ভাড়ায় চকরিয়াগামী ‘শাহ জব্বারিয়া’ (যার নং-কক্সবাজার-জ, ১১- ০১৭২) লিখা বাসে উঠেন। গাড়িতে উঠে দেখেন ভিন্ন চিত্র। প্রতি আসনে যাত্রী বসা। দাঁড়িয়ে আছে আরো ৭/৮ জন মতো। কারো মুখে মাস্ক নেই। সে ব্যাপারে বাস সংশ্লিষ্টদের কোন তৎপরতাও নেই।

এ অবস্থা দেখে প্রতিবাদ করেন মিনহাজসহ কয়েকজন যাত্রী। তাতে কাজ হয় নি। উল্টো ধমক দেয় বাসের সুপার ভাইজার। অভিযোগ পাত্তাই দেয় নি ওই বাসচালক। পরে, ৯৯৯ ফোন করেন মিনহাজ। ততক্ষণে গন্তব্যে পৌঁছে যায় বাসটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিনহাজুল কবির বলেন, ৫০ টাকার স্থলে ১০০ টাকা ভাড়ায় গাড়িতে উঠি। দেখি প্রতি সিটে যাত্রী। দাঁড়িয়ে থাকে ৭/৮ জন। মাঝপথেও নিয়েছে অনেক যাত্রী।

তিনি বলেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর পরেও সিটের বাইরে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়েছে ‘শাহ জব্বারিয়া’ বাসটি।

বাসের চালককে গাড়ি দাঁড় করিয়ে বলার পরও কোন ফলাফল পাওয়া গেল না। বিষয়টি ৯৯৯-এ ফোন করে জানিয়েছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •