এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া
সাম্প্রতিক সময়ে আবারো মরণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাবের কারণে সরকারী নির্দেশনায় সারাদেশে স্কুল-কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় ও মাদ্রাসাসহ সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ ঘোষনা করেছে সরকার। কিন্তু সরকারের এই নির্দেশনা অমান্য করে চকরিয়ায় বেশ কিছু স্কুল ছাত্রাবাস খোলা রেখে শিক্ষার্থীদের পাঠদান ও কোচিং সেন্টারে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখায় ওইসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (০১ এপ্রিল) দুপুরে এ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ শামসুল তাবরীজ। এ সময় চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ, চকরিয়া গ্রামার স্কুল ও বেশ কয়েকটি কোচিং সেন্টারে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি দেখে ওইসব প্রতিষ্টানসমুহ সিলগালা করে দেন। অভিযানের সময় পাঁচজনকে আটক করা হলেও পরে তাদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সারাদেশে আবারো করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে গেছে। এ কারণে নির্দেশনা জারী করে সরকার সবধরনের শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ ঘোষনা করেছে। কিন্তু সরকারের এই নির্দেশনা অমান্য করে চকরিয়ায় বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্টান ছাত্রাবাস খোলা রেখে শিক্ষার্থীদের পাঠদান ও কোচিং সেন্টারে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখায় বৃহস্পতিবার ওইসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার সমুহে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়। এ সময় কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্টান সিলগালা করে দেয়ার পাশাপাশি ভবিষ্যতে যাতে এধরনের কার্যক্রম না চালায় সেজন্য কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়।

ইউএনও আরও বলেন,করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের দেওয়া ১৮টি নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রশাসন বদ্ধ পরিকর। এসব নির্দেশনা পালন করতে নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হবে। ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চলাকালে থানা পুলিশের একটি টিম, আনসার সদস্য ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ সাথে ছিলেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •