ফারুক আহমদ, উখিয়া :

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মাঝে এনজিও সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশনের খাবার বিতরণ নামে তুলকালাম ঘটনা চলছে। দু গ্রুপের দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৪জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
গতকাল (৩০ মার্চ) মঙ্গলবার রাতে বালুখালী ময়নার ঘোনা নামক স্থানে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। বর্তমানে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। দু’পক্ষই সাব ভেন্টর সাইফুল ইসলাম খোকার নিয়োজিত রশিদ ও নুর হোসেন বাবুচি এবং মেট বলে জানা গেছে।
বালুখালী এলাকার ছাত্রলীগ নেতা জানান, সাইফুল ইসলাম খোকার নিয়োজিত দুই গ্রুপ বাবুচিদের রান্না করা খাবার সরবরাহ নিয়ে অভ্যন্তরীণ অন্তঃ দ্বন্দ্বের জের হিসাবে এ ঘটনাটি সংঘটিত হয়। এতে শামসুল আলম( ৫০) সহ ৪ জন আহত হয়েছে।
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে গত ২২ মার্চ বালুখালীতে ৫ টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১১ জন নিহত হন। বসতি ঘর পুড়ছে ৯ হাজার ৩ শত। অগ্নিকাণ্ডে গৃহহীন হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৫ হাজারের অধিক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী ।
খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ডাব্লিউ এফপি’র অর্থায়নে বিভিন্ন এনজিও সংস্থা রান্না করা খাবার সামগ্রী বিতরণে এগিয়ে আসেন। তন্মধ্যে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ নামক একটি এনজিও সংস্থা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রান্না করা খাবার সরবরাহ করে যাচ্ছে। এতে দাতা সংস্থা হিসেবে অর্থায়ন করছেন ডাব্লিউ এফপি।
সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, কোট বাজার স্টেশনে কয়েকজন হোটেল মালিক ও রত্না পালংয়ের রুহুল্লা ডেবা গ্রামে হাজার হাজার প্যাকেট খাবার রান্না করা হচ্ছে। প্রত্যক্ষদর্শী ভুলু ও সব্বির জানান, রুহুল্লার ডেবায় শতশত প্যাকেট নষ্ট খাবার ফেলে দেওয়া হচ্ছে। এতে পরিবেশে দূষিত হয়ে উঠেছে।
হোটেল মালিকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, রামুর সাইফুল ইসলাম খোকা নামক এক ব্যক্তি বিভিন্ন হোটেলের লাইসেন্স , প্যাড ও ম্যামুবই নিয়ে এনজিও সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন কে ম্যানেজ করে রান্না করা খাবার সরবরাহ করার দায়িত্ব ভাগিয়ে নেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাইফুল ইসলাম খোকা প্রথমে অস্বীকার করে তিনি কয়েকজন সাংবাদিকদের সাথে পরিচয় ও সম্পর্ক রয়েছে বলে গুরুত্বসহকারে বলতে থাকেন । এক পর্যায়ে বলেন তার রেফারেন্স নিয়ে হোটেল মালিকরা ওয়ার্ল্ড ভিশনে রান্না করা খাবার সরবরাহ করছে।
হোটেল শাহ মজিদিয়ার মালিক মফিজ ও রুহুল্লা ডেবা গ্রামের ফোরকান বলেন সাইফুল ইসলাম খোকার হয়ে তারা এনজিও সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন কে রান্না করা খাবার সরবরাহ করছে।
সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, সাইফুল ইসলাম খোকা কোটবাজারে রান্নার পয়েন্ট গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০ টায় হঠাৎ বন্ধ করে দিয়ে রশিদ বাচুচির মাধ্যমে একটি দল নিয়ে বালুখালীতে চলে যান। মূলত এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওইদিন রাতেই দুগ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনা চলাকালে ওয়ার্ল্ড ভিশনের কর্মরত কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।
ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এর অপারেশন ডাইরেক্টর অর্তুন মং এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর মাঝে প্রতিদিন ৩৭;হাজার প্যাকেট রান্না করা খাবার বিতরণ করা হচ্ছে । খাবারের সঠিক গুণগত মান বজায় রাখার জন্য বেশ কয়েকটি টিম মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •