সিবিএন ডেস্ক:
বেসরকারি শিক্ষকদের বিএড ও এমএড ডিগ্রি অর্জন করলে তা উচ্চতর স্কেল হিসেবে গণনা করা হবে না। এই ডিগ্রি থাকা শিক্ষকদের বেতন স্কেল হবে ১০ম গ্রেড। তবে শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির সময় এই ডিগ্রি না থাকলে একধাপ নিচে বেতন ধার্য হবে। আর পরবর্তী ৫ বছরের মধ্যে প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত এই ডিগ্রি অর্জন করতে হবে। এই বিধান রেখে ‘বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০২১’ জারি করেছে সরকার। রবিবার (২৮ মার্চ) স্বাক্ষরিত নীতিমালাটি সোমবার (২৯ মার্চ) প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

২০১৮ সালের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড পাওয়ার ক্ষেত্রে বিএড/এমএড বা সমমান ডিগ্রির জন্য প্রাপ্য স্কেল উচ্চতর গ্রেড হিসেবে বিবেচনা করায় বঞ্চিত হচ্ছিলেন শিক্ষকরা। নির্ধারিত দুটি স্কেলের একটি কমে যাচ্ছিল শিক্ষা ডিগ্রি অর্জনকে উচ্চতর গ্রেড হিসেবে গণনা করায়। সংশোধিত নতুন নীতিমালায় এই সমস্যা থাকছে না।

নতুন নীতিমালা অনুযায়ী পদোন্নতি ছাড়া সমগ্র শিক্ষা জীবনে দুটি উচ্চতর স্কেল/গ্রেড পাবেন। শিক্ষা ডিগ্রি উচ্চতর স্কেল/গ্রেড হিসেবে গণনা করা হবে না।

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের (স্কুল ও কলেজ) বেতন-ভাতা নির্ধারণ অনুচ্ছেদের ১১.৩ ধারায় বলা হয়, নিম্ন মাধ্যমিক/মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষায় ডিগ্রিবিহীন কোনও সহকারী শিক্ষক, সহকারী মৌলভী যোগদানের ৫ বছরের মধ্যে সরকারি প্রশিক্ষণ কলেজ/সরকার কর্তৃক শিক্ষক প্রশিক্ষণের জন্য অনুমোদিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষায় ডিগ্রি (বিএড/এমএড/সমমান- যাদের ক্ষেত্রে এসব ডিগ্রি প্রযোজ্য) অর্জন করলে তিনি এ ডিগ্রির জন্য জাতীয় বেতন স্কেলের ১০ম গ্রেডে বেতন-ভাতাদি প্রাপ্য হবেন। শিক্ষায় ডিগ্রির জন্য এ গ্রেড উচ্চতর স্কেল/গ্রেড হিসেবে গণনাযোগ্য হবে না। এই জনবল কাঠামো জারির আগে শিক্ষায় ডিগ্রিবিহীন এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা এ জনবল কাঠামো জারির পরবর্তী ৫ বছরের মধ্যে শিক্ষায় বিএড/এমএড/সমমান ডিগ্রি অর্জন করতে পারবেন। -বাংলা ট্রিবিউন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •