মহেশখালী প্রতিনিধি:
মহেশখালী উপজেলার নোনাছড়িতে মুফিজুর রহমান নামে এক শিক্ষকের জমি দখল বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য অবৈধভাবে পাকা বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। ভুক্তভোগী মুফিজুর রহমান হোয়ানক ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার।

তিনি জানান, বস্তোবস্তমূলে নোনাছড়ি বাজারের উত্তর পাশে অবস্থিত ৩৩ শতক জমির মালিক মফিজুর রহমান ও তার স্ত্রী। দীর্ঘদিন ধরে তারা জমিটি ভোগ দখলে রয়েছেন। এর মধ্যে খতিয়ানও সৃজন করা হয়েছে। যার নং ১১৩৬, দাগ নং-২৪৭৫/১ ও ২৮৮৫। কিন্তু গত এক বছর আগে হঠাৎ করে জমির প্রায় ১০ শতাংশ জমির দখলে মরিয়া হয়ে উঠে মফিজুর রহমানের প্রতিবেশী আলী আকবর গং। এই নিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন শিক্ষক মুফিজুর রহমান। যার নং- ৪৬০/২১। এই মামলার প্রেক্ষিতে জায়গায় কোনো ধরণের হস্তক্ষেপ না করতে আলী আকবর গংয়ের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন আদালত। বর্তমানে মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।

কিন্তু আদালতের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে হঠাৎ ওই জমিতে পাকা বাড়ি নির্মাণ শুরু করে আলী আকবর গং। গত কয়েকদিন ধরে কাজ চলমান রয়েছে। শিক্ষক মুফিজুর রহমান বারণ করলেও গায়ের জোর দেখিয়ে আলী আকবর গং কাজ চালাচ্ছে। এতে চরম অসহায় হয়ে পড়েছেন শিক্ষক মুফিজুর রহমান।

জবর দখলকারীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে আকুল আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষক মুফিজুর রহমান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •