সিবিএন ডেস্ক:

দেশে করোনাভাইরাস আসার পর ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছেন। পাঁচ হাজার ১৮১ জন শনাক্ত হয়েছেন গত একদিনে। দেশে করোনা মহামারির গত এক বছরে ২৪ ঘণ্টায় এতো পরিমাণ রোগী শনাক্ত হননি এর আগে। আজ সোমবার (২৯ মার্চ) করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪৫ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে অধিদফতর।

এর আগে গত বছরের ২ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতর চার হাজার ১৯ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ার খবর জানিয়েছিল। করোনা মহামারিতে সেটাই ছিল বাংলাদেশে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড।

দেশে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসাবে করোনা শনাক্ত হলেন ছয় লাখ ৮৯৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ জনের মৃত্যু নিয়ে সরকারি হিসাবে মারা গেলেন আট হাজার ৯৪৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৭৭ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনা থেকে সুস্থ হলেন মোট পাঁচ লাখ ৩৮ হাজার ১৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগ্রহীত হয় ২৮ হাজার ৬৮৮টি। নমুনা পরীক্ষা হয় ২৮ হাজার ১৯৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৬ লাখ ১৭ হাজার ২৫টি। তার মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩৫ লাখ ৫৪৮টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ১১ লাখ ১৬ হাজার ৪৭৭টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪৫ জনের মধ্যে পুরুষ ৩০ জন এবং নারী ১৫ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত দেশে পুরুষ মারা গেছেন ছয় হাজার ৭৪৬ জন এবং নারী দুই হাজার ২০৩ জন। শতকরা হিসেবে পুরুষ ৭৫ দশমিক ৩৮ শতাংশ, নারী ২৪ দশমিক ৬২ শতাংশ।

বয়স বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব রয়েছেন ২৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আট জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চার জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে আছেন একজন।

বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ২৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ছয় জন, রাজশাহী বিভাগের পাঁচ জন, খুলনা বিভাগের তিন জন, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগের একজন করে।

তাদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৪৪ জন, আর বাসায় মারা গেছেন একজন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দৈনিক রোগী শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৩৮ শতাংশ। আর এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক শূন্য এক শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ। আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৪৯ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়া দুই হাজার ৭৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন এক হাজার ৫৬৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৪১৭ জন, রংপুর বিভাগের ১০ জন, খুলনা বিভাগের ছয় জন, বরিশাল বিভাগের পাঁচ জন, রাজশাহী বিভাগের ২৭ জন, সিলেট বিভাগের ৩৯ জন, আর ময়মনসিংহ বিভাগের আছেন পাঁচ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন এক হাজার ৩৪৯ জন। আর ছাড় পেয়েছেন ৭২৮ জন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন ছয় লাখ ৪৭ হাজার ২৮৯ জন। আর ছাড় পেয়েছেন ছয় লাখ ১১ হাজার ৪৫৪ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৩৫ হাজার ৮৩৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ৩৬৮ জন। আর ছাড় পেয়েছেন ৯৩ জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন এক লাখ চার হাজার ১২৫ জন। আর ছাড় পেয়েছেন ৯২ হাজার ৯২৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১১ হাজার ২০০ জন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •