সিবিএন ডেস্ক:
আসন্ন রমজান উপলক্ষে পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে মসজিদুল হারাম পরিচালনা কমিটি।

রোববার মক্কা ও মদিনা পবিত্র মসজিদ বিষয়ক কমিটির প্রেসিডেন্ট শেখ আব্দুর রহমান আল সুদাইস প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এসব পরিকল্পনা প্রকাশ করেন।

করোনা মহামারি বিবেচনায় এসব পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এতে বলা হয়, হারামাইন শরিফাইনে তারাবির নামাজ ১০ রাকাত পড়ানো হবে। পাশাপাশি তাহাজ্জুদ হবে তিন রাকাত।

ইবাদতকারীদের মসজিদুল হারামের আবদুল্লাহ সম্প্রসারণ এলাকার, প্রথম তালা, ছাদ এবং প্রাঙ্গণে ইবাদতের অনুমতি দেওয়া হবে। তবে ইবাদতকারীদের জন্য মাতাফ বন্ধ থাকবে।

ওমরাহ পালনকারীরা কাবা স্পর্শ করতে পারবে না। ইফতার বাইরে থেকে সরবরাহ স্থগিত থাকবে, এর পরিবর্তে পৃথক ইফতার বিতরণ করা হবে।

শেষ দশ দিন এতেকাফ বন্ধ থাকবে। বোতলে জমজমের পানি সরবরাহ করা হবে। গ্র্যান্ড মসজিদে প্রবেশের অনুমতি কেবলমাত্র ইটমারনা অ্যাপের মাধ্যমে ইস্যু করা বৈধ পারমিটের সাথে অনুমোদিত হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •