উগ্র মৌলবাদীদের রাস্তায় নামিয়ে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা থামানো যাবে না-মেয়র মুজিব

এম.এ আজিজ রাসেল :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে মৌলবাদী ও পাকিস্তানী পরাজিত শক্তির দোসরদের পরিকল্পিত নাশকতা এবং হরতাল প্রতিহত করতে কক্সবাজার শহরজুড়ে রাজপথে অবস্থান নিয়েছে কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগসহ যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। রোববার (২৮ মার্চ) সকাল সকাল ১১ টায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কাযার্লয় থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ঘুরে পৌরসভা প্রাঙ্গণে এসে সমাবেশে মিলিত হয়। কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর’র সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক মো. শাহেদ আলী সাহেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, ভারতের একজন প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আসবেন, সেটাই তো স্বাভাবিক। এটাই প্রতিবেশীর প্রতি তার দায়িত্ববোধ। বাংলাদেশ এবং দেশের জনগণকে সম্মানিত করার জন্যই তিনি বাংলাদেশে এসেছেন। কিন্তু কিছু সংখ্যক উগ্র মৌলবাদীকে রাস্তায় নামিয়ে দিয়ে, বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দেওয়া যাবে না।
তিনি আরও বলেন, যারা এদেশের স্বাধীনতা চায়নি তারা দেশের সাফল্যে ঈর্ষান্বিত। তারা বিভিন্নভাবে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় যাতে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দেওয়া যায়। তারা দেশ ও জনগণের কল্যাণ চায় না। এদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা তাই এখনো ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কাজী মোস্তাক আহমদ শামীম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদা তাহের, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, জেলা তাঁতী লীগের সভাপতি আরিফ উল মাওলা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান, পৌর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডা. পরিমল কান্তি দাশ ও গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী।
সমাবেশে কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে একাত্তরের পরাজিত শক্তি হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ করে নাশকতার চেষ্টা চালিয়েছে। আবার কথিত হরতালের আহবান করছে। মুলত হরতালের আড়ালে এরা নাশকতা সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে। তাই কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সকল ওয়ার্ডের নেতাকমীর্রা স্ব—স্ব এলাকায় অবস্থান নিয়ে নাশকতা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রাচীর গড়ে তুলেছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম, মো. ইয়াহিয়া, নুরুল আলম পেঠান, শাহনেওয়াজ চৌধুরী, নজরুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, মোরশেদ, শাহাব উদ্দিন শাবু, শুভ দত্ত বড়ুয়া, এবি ছিদ্দিক খোকন, আবদুল্লাহ আল মাসুদ, ওয়াহিদ মুরাদ সুমন, আরমানুল আজিম, তাজ উদ্দির তাজু, হাবিব উল্লাহ, জাফর আলম, জহিরুল কাদের ভূট্টো, দীপক দাশ, নজরুল ইসলাম, মোরশেদ আলম চৌধুরী, জানে আলম পুতু, নুর মোহাম্মদ, রাশেদুল ইসলাম ডালিম, জাফর আলম, আজিমুল হক সেলিম, আবু আহমেদ, সেলিম নেওয়াজ, খোরশেদ আলম, মেজবাহ উদ্দিন কবির, আবদুল মজিদ সুমন, মো. ইলিয়াস, আমির উদ্দিন প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •