প্রকাশ: ২৫ মার্চ, ২০২১ ০৯:১১

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালো রাতের অগণিত শহীদের শ্রদ্ধা ও সম্মান জানিয়ে আলোক প্রজ্জ্বলন করেছে ছায়ানীড়। কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আলোক প্রজ্জ্বলন করে বীর শহীদদের সম্মান জানিয়ে আলোর মিছিল সহকারে কক্সবাজারের প্রথম শহীদ মিনারে সমাপন ঘটে আলোক প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানের। আলোক প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কক্সবাজার প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মুজিবুল ইসলাম।

উদ্বোধনী বক্তব্যে সাংবাদিক মুজিবুল ইসলাম বলেন-মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়তে নতুন প্রজন্মকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। তিনি এই গণ হত্যাকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার আহবান জানান।

আলোক প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন এর কেন্দ্রিয় সদস্য এডভোকেট তাপস রক্ষিত, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলন, সাংস্কৃতিক সংগঠক ও আমরা কক্সবাজারবাসীর সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, পরিবেশ আন্দোলনের সংগঠক সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপু, দৈনিক সকালের কক্সবাজার পত্রিকার সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, হেমন্তিকা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক অনিল দত্ত, শ্রমিক নেতা একে ফরিদ আহম্মদ, শক্তি কক্সবাজার এর পরিচালক ও সংগঠক উজ্জ্বল সেন। ছায়ানীড় সভাপতি কল্লোল দে চৌধুরী’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহমুদ সাকিবের সঞ্চালনায় গত ২৫ মার্চ সন্ধ্যায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক ও সংগঠক সুজন দাশ, মানবাধিকার সংগঠক ছৈয়দ উল্লাহ আজাদ, সাংবাদিক আজিজ রাসেল, সংগঠক রফিকুল ইসলাম সোহেল, আদিবাসী ফোরাম সাধারণ সম্পাদক মংথেলা রাখাইন, সংগঠক মোহাম্মদ ইলিয়াছ মিয়া, ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ এর সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী নেওয়াজ, বর্তমান সভাপতি খন্দকার মো জুনাইদ তানভীর, সাংস্কৃতিক কর্মী আমানুল্লাহ আমান, সংগীত শিল্পী আবু তাহের কুতুবী, ছায়ানীড় কর্মকর্তা আবদুর রশিদ মানিক, ভিজিডি সংগঠক জোবাইদ মোঃ ইউসুফ নাজমা আক্তার রেশমি, সাংস্কৃতিক কমী শান্ত কুমার দে, সামান্তা, নিমাই চক্রবর্তী, মোঃ শফিকুল ইসলাম, টুটুল অচার্য্য। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •