সময়নিউজ: লক্ষ্মীপুরে বড় ভাইয়ের দেয়া চুরির অপবাদ সইতে না পেরে ফেসবুক লাইভে এসে জেলা জজ আদালতের ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে রাকিব হোসেন রোমান নামে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২৪ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের জেলা জজ আদলত ভবনের ৬ তলার ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়লে ওই তরুণের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রাকিবকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রাকিব সদর উপজেলার উত্তর মজুপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। সুমাইয়া নামে তার এক স্ত্রীও রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাকিব তার বড় ভাই সোহেলের ভাঙারির দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতো। কিছুদিন পূর্বে ভাংগারি দোকান থেকে তামার যন্ত্রাংশ খোয়া (চুরি) যায়। এ নিয়ে বড় ভাই রাগ করে তাকে চুরির অপবাদ দিয়ে দোকান থেকে তাড়িয়ে দেয়। বড় ভাইয়ের দেয়া চুরির অপবাদ সইতে না পেরে রাগে-অভিমানে জেলা জজ আদালতের ৬ তলা ভবনের ছাদ উঠে ফেসবুক লাইভে আসে রাকিব।

ফেসবুক লাইভে নিজেকে চোর নয় বলে দাবি করে মা-বাবার কাছে ক্ষমা চায় সে। এসময় নিজের ব্যাংক হিসাব ও গোপন ডিজিট নম্বর জানিয়ে এবং নিজের মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয় বলে ছাদ থেকে লাপিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করে রাকিব।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, বেলা পৌনে ১টার দিকে রাকিব হোসেন নামের ওই তরুণকে হাসপাতালে মৃত অবস্থায় নেয়া হয়। শুনেছি সে ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে ময়নাতদন্ত হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

লক্ষ্মীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মিমতানুর রহমান বলেন, তরুণের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। এসময় ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আত্মহত্যার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে পরে জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •