ক্রীড়া ডেস্ক:
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন সবশেষ ২০১৮ সালে। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটেও সবশেষ নামা গতবছরের মার্চে। মাঝের এক বছরে কোনো পর্যায়ের স্বীকৃত ক্রিকেটে খেলেননি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অফস্পিনিং অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। তবে আবুধাবিতে দশ ওভারের ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে খেলেছেন গত মাসে।

অথচ মাসখানেক ধরেই ব্যক্তিগত এক কারণে খবরের শিরোনামে পাওয়া যাচ্ছে তাকে। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি, বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন নাসির। এরপর থেকেই শুরু হয়েছে যত আলোচনা। নাসিরের স্ত্রী তামিমা তাম্মির সাবেক স্বামী রাকিব হোসেনের দাবি, তার (রাকিব) সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার আগেই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা।

এ নিয়ে গত মাসখানেক ধরেই চলছে নানান আলোচনা। যা থেকে মুক্তি পেতে এক ঝটিকা সংবাদ সম্মেলনেরও আয়োজন করেছিলেন নাসির-তামিমা দম্পতি। কিন্তু এতেও থামেনি নাসিরের বিবাহ সম্পর্কিত মুখরোচক সব আলোচনা। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমতো হেনস্থা করা হচ্ছে নাসিরকে।

ব্যক্তিগত জীবনের এই অস্থিতিশীল সময়ের মাঝেই এবার প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরতে চলেছেন নাসির। আগামীকাল (সোমবার) থেকে শুরু হতে যাওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে নিজ বিভাগ রংপুরের হয়ে খেলবেন তিনি, ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়ে জায়গা পেয়েছেন ১৪ সদস্যের স্কোয়াডে। সব ঠিক থাকলে মূল একাদশেও দেখা যাবে তাকে।

গত কয়েকদিনে ব্যক্তিজীবনে যা কিছুই ঘটুক না কেন, খেলার মাঠে এসবের প্রভাব পড়বে না বলে বিশ্বাসী নাসির। তবে পাশাপাশি এটিও জানিয়েছেন, বিয়ের বিষয়ে তিনি সবকিছু আইনগতভাবেই করেছেন। প্রয়োজনে সংবাদসম্মেলন ডেকে সবকিছু বিস্তারিত দেখানোর কথাও বলেছেন তিনি।

রোববার মিরপুর একাডেমি মাঠে সংবাদমাধ্যমে নাসির বলেছেন, ‘এটা ক্রিকেট মাঠ। এখানে খেলতে আসলে আমার মাথায় বাইরের চিন্তা থাকে না। কোনো খেলোয়াড়েরই থাকে না। বাইরে যাই হোক না কেন, ব্যাটিং বোলিং করার সময় এসব চিন্তা থাকে না। আমি যা-ই করেছি লিগ্যালি করেছি। সংবাদ সম্মেলন ডেকে আপনাদের বিস্তারিত দেখিয়ে দিব।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘এটুকুই শুধু বলি, আমরা এতটা গাধা না যে, ডিভোর্স না দিয়ে বিয়ে করব। আর কী বলবো আমি… দেখুন, আমরা সব কাগজপত্র সেভাবে দেখাইনি। দুই-তিনজন ইউটিউবার এসব নিয়ে খবর প্রচার করছে আর মানুষজন এতটাই অশিক্ষিত, একতরফাভাবে এসব শুনে মাতামাতি করছে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •