মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু:
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের আবুল কালামের ছেলে আবু রায়হান (২৫) কে মারধর ও মুখে বিষ প্রয়োগ করে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করছে তার পরিবার। গত মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) বিকাল ৪ টায় নিহত রায়হান শাশুড় বাড়িতে বেড়াতে গেলে এ ঘটনা ঘটে বলে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন তার মা হামিদা বেগম ।

এ বিষয়ে নিহতের মা বাদী হয়ে ১৭ মার্চ রামু থানায় এরশাদ উল্লাহ, পিতা:- মৃত শামসু মিয়া, রেহেনা বেগম, স্বামী এরশাদ উল্লাহ ও সাদিয়া সুলতানা জুশি’ কে আসামী করে অভিযোগ দায়ের করেন। এ অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২০ মার্চ রামু থানার এস আই কামরুল ও ঈদগড় পুলিশ ফাঁড়ির এস আই জাফর উল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযোগ তদন্তে আসা রামু থানা পুলিশের এস আই কামরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় অপমৃত্যুর মামলা রুজু হয়েছে তাই ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে আসল রহস্য জানা যাবে। তখন রিপোর্ট দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শশুর বাড়ির লোকজন রায়হানকে আহত অবস্থায় প্রথমে ঈদগড় মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যায় সেখানে ডাক্তার প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরের দিন মারা যান রায়হান। এদিন নিহতের আত্মীয়স্বজন হাসপাতালে পৌছার আগে তার শাশুড় – শাশুড়ি ও নিজ স্ত্রী স্বামী রায়হানকে একা হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। গতকাল ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেখতে পায়, এরশাদউল্লাহ বাড়িতে তালা ঝুলানো। স্বপরিবারে আত্মগোপন করে থাকায় তাদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেন সাদেক, আবদুর রহিম বাবুলসহ এসময় উপস্থিত অসংখ্য মানুষ রায়হান হত্যার বিচার দাবী করেন। নিহতের মা হামিদা বেগম কান্না বিজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার ছেলেকে মারধর ও মুখে বিষ প্রয়োগ করে হত্যা করেছে। আমি ছেলে হত্যার বিচার চাই যেন এরকম আর কোনো মায়ের বুক খালি না হয়। এলাকাবাসী জানান,বউয়ের সাথে তার প্রায় সময় ঝগড়া বিবাধ হতো। এর রেশ ধরে ঘটনার দিন সকালে রায়হান শাশুড় বাড়ীতে গেলে শাশুড়বাড়ীর লোকজন তাকে মেরে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যা করেছেন বলে দাবী করেন তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •