বার্তা পরিবেশক  :
বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর, বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ আল্লামা ছরওয়ার কামাল আজিজী বলেছেন, খতীবে আযম আল্লামা ছিদ্দিক আহমদ রহ. ও শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. ঈমানী আন্দোলন-সংগ্রামে অবিস্মরণীয় দু’টি নাম। শুধু নাম নয়; বিরল এই দুই মনীষীর প্রতিজনই একেকটি বিপ্লব, একেকটি সংগ্রাম, একেকটি সমৃদ্ধ ইতিহাস। ইসলামী নেজাম প্রতিষ্ঠার আন্দোলন, দ্বীনি শিক্ষার বিকাশধারা, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও জনকল্যাণে তাঁদের ঈমানী চেতনাদীপ্ত অবদান যুগ-যুগান্তরে ঈমানী আন্দোলন ও স্বাধিকার আদায়ের লড়াইয়ে প্রেরণা যুগাবে।
তিনি ১৮ মার্চ (বৃহস্পতিবার), বিকেলে খতীবে আযম রহ. এর জন্মভূমি কক্সবাজার জেলার চকরিয়ায় উল্লেখিত দুই কীর্তিমান মনীষী স্মরণে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান মেহমানের বক্তব্যে একথা বলেন।
চকরিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে খতীবে আযম রহ. ও আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. স্মৃতি ফাউন্ডেশন আয়োজিত এ জীবনী আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার। তিনি বলেন, খতীবে আযম আল্লামা ছিদ্দিক আহমদ রহ. যুগশ্রেষ্ঠ আলেমেদ্বীন, প্রাজ্ঞ শায়খুল হাদীস, দার্শনিক রাজনীতিবিদ, তুখোড় পার্লামেন্টারিয়ান, বিদগ্ধ লেখক, প্রখ্যাত গবেষক, বাগ্মী, বিতার্কিক ও বিপ্লবী সমাজ সংস্কারক ছিলেন। শিরক ও বিদ্আতসহ বাতিল অপশক্তির বিরুদ্ধে বিংশ শতাব্দীর এ সংগ্রামী ব্যক্তিত্ব ও বুযুর্গ মনীষী সারা জীবন সংগ্রাম করে গেছেন। আর তাঁরই একনিষ্ঠ শিষ্য শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ.ও হাদীসের দরস-তাদরীস ও আধ্যাত্মিক দীক্ষা দানের পাশাপাশি ঈমানী আন্দোলন-সংগ্রামে বিপ্লবী অবদান রেখে গিয়েছেন। নাস্তিক-মুরতাদদের অাস্ফালন রুখে দাঁড়াতে একবিংশ শতাব্দীর এ মুজাহিদ আযম যে সংগ্রামী ভূমিকা পালন করে গিয়েছেন তা ইতিহাসে চিরঅম্লান হয়ে থাকবে।

খতীবে আযম রহ. ও আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. স্মৃতি ফাউন্ডেশনের আহবায়ক, খতীবে আযম রহ. এর সাহেবযাদা, বরইতলী ফয়জুল উলুম মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা হাফেজ সোহাইব নোমানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলার শীর্ষ আলেমেদ্বীন, চকরিয়া বালাগুল মুবিন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মুফতি এনামুল হক, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি কক্সবাজার জেলা আমীর মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহ।
স্মৃতি ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহবায়ক, জেলা নেজামে ইসলাম পার্টির সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফরিদুল হক ও মাওলানা ডা. মঈন উদ্দিন গাজীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ আলোচক ছিলেন, কক্সবাজার জেলা নেজামে ইসলাম পার্টির অর্থ সম্পাদক মাওলানা নুরুল হক চকোরী, ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর।
এ আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, লোহাগাড়া সমদিয়া মাদ্রাসার শায়খুল হাদীস মাওলানা আমান উল্লাহ, দরবেশকাটা মাদ্রাসার শিক্ষক, নেজামে ইসলাম পার্টির প্রবীণ নেতা মাওলানা নুরুল হক, উপজেলা নেজামে ইসলাম পার্টির সদস্য মাওলানা ডা. শাহাব উদ্দিন, মাওলানা আহমদ কবির, তরুণ আলেম মাওলানা আব্দুল জাব্বার।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া বহদ্দারকাটা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা হোসাইন আহমদ, বানিয়ারচর মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা কারী নুরুচ্ছুলতান, বরইতলী মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক মাওলানা হাফেজ আনিছুর রহমান, মানিকপুর মদীনাতুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা এস. এম মাহবুব মোর্শেদ, কক্সবাজার ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মুহাম্মদ হাসান, চকরিয়া মা’আহাদুর রশিদ মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা হাফেজ রুহুল আজিম, জেলা হুফফাজুল কুরআন ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি মাওলানা হাফেজ জামাল উদ্দিন তৌহিদ, জেলা ইসলামী ছাত্রসমাজের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ দিদারুল আলম প্রমুখ।
মরহুম এই দুই বুযুর্গ মনীষী সংগ্রামী ব্যক্তিত্বের রুহের মাগফিরাত কামনায় বিশেষ মুনাজাতের মধ্যদিয়ে আলোচনা সভা শেষ হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •