প্রেস বিজ্ঞপ্তি
বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য আন্দোলনরত ‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক’ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে কক্সবাজারে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে (১৮ মার্চ) বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় জলবায়ু অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে পরিবেশবাদী সংগঠন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস।
আগামী জাতিসংঘের বিশেষ জলবায়ু বিষয়ক অধিবেশনকে সামনে রেখে ২০-২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু ধর্মঘট পালনের ডাক দেয় ‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক’।
কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে জলবায়ুকর্মীরা আসন্ন জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন কপ-২৬ এবং যুব সম্মেলনকে সামনে রেখে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির হার ১.৫ ডিগ্রিতে সীমিত রাখতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে চাপে রাখা সহ প্যাারিস চুক্তি বাস্তবায়নের দাবি জানায়।
উল্লেখ্য, সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে সুইডেনের স্কুলপড়ুয়া ছাত্রী গ্রেটা থানবার্গ একটি প্ল্যাকার্ড হাতে অবস্থান নেন। সেখানে লেখা ছিল,‘স্কুল স্ট্রাইক ফর ক্লাইমেট’। তার এই উদ্যোগের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্বের নানা প্রান্তের স্কুল পড়ুয়ারা ধর্মঘট পালন করে। তারই ধারাবাহিকতায় জাতিসংঘের বিশেষ জলবায়ু বিষয়ক অধিবেশনকে সামনে রেখে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু ধর্মঘট পালনের ডাক দেয় ‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক’-এর ব্যানারে সুইডেনের ছাত্রী গ্রেটা ও বিশ্বের তরুণ সমাজ।
কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে জলবায়ু অবরোধে অংশ নেয় কোস্টাল ইয়ুথ এ্যাকশন হাব, বাংলাদেশ মডেল ইয়ুথ পার্লামেন্ট,ফ্রাইডেস ফর ফিউচারসহ জেলার বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন।এসময় শারমিন আক্তারের সঞ্চালনায় ‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক ডে’ এর প্রতি সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন ইউসুফ মোহাম্মদ
কোর্ডিনেটর অফ ইয়ুথ অ্যাক্টিভিটি ইন কক্সবাজার (ইপসা), সভাপতিত্ব করেন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস প্রধান সমন্বয়ক শাকিলা ইসলাম।বিশেষ অতিথি ছিলেন কলিম উল্লাহ সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) কক্সবাজার জেলা।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলার সমন্বয়কারী জিমরান মোঃ সায়েক সহ অনন্য বক্তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •