আল মাহমুদ ভূূূূট্টো, রামু:
রামুতে প্রতিক্রিয়াশীল সাংবাদিকতার বিষয়ে রামুর কর্মরত স্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে ইউএন ওমেন এর পরিচালনায় লিঙ্গ প্রতিক্রিয়াশীল সাংবাদিকতা সম্পর্কিত সংলাপ এবং ওরিয়েন্টেশন সেশন সম্পন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) রামু উপজেলা পরিষদ হলরুমে সকাল ১১ টায় শুরু হয়ে দুপুর ১:৩০ মিনিট পর্যন্ত উক্ত সেমিনারের বিভিন্ন কার্যক্রম অনু্ষ্ঠিত হয়।

উক্ত সেমিনারে গণমাধ্যমে ইতিবাচক বর্ণনাকে উন্নত করার জন্য ওরিয়েন্টেশন এবং কথোপকথন সেশনের মাধ্যমে সাংবাদিকদের সক্ষমতা জোরদার করার লক্ষ্যে এবং মানবিক প্রতিক্রিয়াতে নারীদের জড়িত থাকার বিষয়টিও গুরুত্বারোপ করা হয়। অধিবেশনে বক্তৃতা অধিবেশন এবং লিঙ্গ-সমতা এবং লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল প্রতিবেদন সম্পর্কিত তথ্য আদান প্রদানে সাংবাদিকদের সাথে সংলাপ অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে কক্সবাজারের ইউএন উইমেন সাব-অফিসের প্রধান ফ্লোরা ম্যাকুলা সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে জানান, প্রতিবেদনে নারীদের প্রতিনিধিত্ব করার ক্ষেত্রে সাংবাদিক এবং গণমাধ্যমের যে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে হবে তা পুনরায় জোর দেওয়া হয়। তিনি নারীদের ভিকটিম না হয়ে রোল মডেল হিসাবে দেখাতে হবে বলে জোর দিয়েছেন। প্রতিবেদনে মহিলাদের লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল প্রতিনিধিত্ব প্রচারে সাংবাদিকদের উত্সাহিত করেন ফ্লোরা। তিনি সাংবাদিকদের বলেন লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল প্রতিবেদনে তাদের সক্রিয় ভূমিকা ক্ষতিকারক সামাজিক নিয়ম এবং মহিলাদের বিরুদ্ধে চর্চাগুলির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভূমিকা রাখবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমা সাংবাদিকদের লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল সাংবাদিকতার পক্ষে তাদের সহযোগিতা বাড়ানোর আহ্বান জানান। তিনি ক্ষতিগ্রস্থদের প্রকাশ্যে প্রকাশের চেয়ে ক্ষতিগ্রস্থদের সুরক্ষায় জোর দেন। তিনি আরও জানান যে সাংবাদিকরা সমাজের আয়না। সংবেদনশীল রিপোর্টিংয়ের প্রভাবগুলি এবং কীভাবে ভুক্তভোগী দ্বিগুণ নির্যাতনের স্বীকার হন সেদিকেও তিনি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি সাংবাদিকদের তাদের অভ্যন্তরীণ মানসিক অন্তর্দৃষ্টি ব্যবহার করে এবং গবেষণা এবং সঠিক তথ্য এবং তথ্যের উপর ভিত্তি করে রিপোর্ট করতে উৎসাহিত করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে, জেএনইউসের নির্বাহী পরিচালক শিউলি শর্মা গবেষণা ভিত্তিক সাংবাদিকতার উপর জোর দিয়ে সংবাদ প্রচার ও রিপোর্টিংয়ের সময় সাংবাদিকদের ঘটনার পাশাপাশি প্রসঙ্গে প্রতিনিধিত্ব করতে উৎসাহিত করেন। তিনি ভিকটিমদের রক্ষার জন্য সাংবাদিকদের সক্রিয় অংশগ্রহণের আহ্বান জানান। তিনি বিশ্বকে নারীর প্রতিভা স্বীকৃতি দিতে এবং জানাতে এবং একটি শান্তিপূর্ণ এবং সমান বিশ্বের জন্য তাদের চিন্তাকে স্বীকৃতি দেওয়ার ক্ষেত্রে মিডিয়া যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে তার প্রতিও দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

তাছাড়া ইউএন মহিলা কর্মী নাদিরা ইসলাম ও মাহমুদুল করিম লিঙ্গ সমতার বিভিন্ন দিক এবং লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল প্রতিবেদনের তাৎপর্য সম্পর্কে আলোকপাত করেন। সংলাপ অধিবেশন জুড়ে সাংবাদিকরা সক্রিয়ভাবে আলোচনায় অংশ নিয়েছিল এবং নারী ও মেয়েদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরণের সহিংসতা এবং লিঙ্গ-প্রতিক্রিয়াশীল প্রতিবেদনের জন্য বিবেচিত হওয়া বিষয়গুলি সনাক্ত করে।

তাছাড়া এই অধিবেশনটির মূল লক্ষ্য ছিল সাংবাদিকদের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করা এবং স্থানীয় সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকে লিঙ্গ সমতার সহযোগী করে তোলা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •