অর্পন বড়ুয়া:
প্রতিবন্ধী বেনু বড়ুয়া৷ লাঠির উপর ভর দিয়ে হাটতেন। বয়স বেড়েছে। এখন আর আগের মত চলাফেরা করতে পারেন না৷ একটুখানি পথ চলতেই নিতে হয় সন্তানের সাহায্য।

সন্তান জিশু বড়ুয়াও প্রতিবন্ধী। সেও দাবিয়ে দাবিয়ে হাটেন। দু’জনেই থাকেন অন্যের ছোট্ট জমিতে একটি কুঁড়ে ঘরে।

রামু উপজেলার হাজারীকুল গ্রামের সেই বেনু বড়ুয়াকে দেয়া হচ্ছে পাকা ঘর৷ মঙ্গলবার বিকেলে প্রশাসন ক্যাডারদের সংগঠন বাংলাদেশ এডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন কক্সবাজার জেলা শাখার পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী এ নারীকে ২ শতক জমি ও ঘরের প্রতীকী দলিল হস্তান্তর করা হয়েছে।

এসময় রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা বলেন, বেনু বড়ুয়া একজন প্রতিবন্ধী নারী। তার ছেলে জিশু বড়ুয়াও প্রতিবন্ধী৷ এতদিন অন্যের জমিতে আশ্রিত ছিলেন তারা। সাংবাদিক অর্পন বড়ুয়ার মাধ্যমে বেনু বড়ুয়া সম্পর্কে আমি অবগত হই৷
প্রধানমন্ত্রীর ‘জমি নাই, ঘর নাই’ প্রকল্পের আওতায় জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ এডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ পাকা ঘরটি তাকে প্রদান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন- অল্প কিছু দিনের মধ্যে কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের লট উখিয়ারঘোনায় তার জন্য নিমিত ঘরটি তার কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে, লট উখিয়ার ঘোনায় আরো ২ দৃষ্টি প্রতিবন্ধীকেও পাকা ঘর ও জমি দেয়া হবে বলে জানান তিনি৷

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •