ইউসুফ আরমান:

কক্সবাজার একটি পর্যটন নগরী সৌন্দর্য বর্ধমান পরিধি বিস্তৃতি থাকাই স্বাভাবিক। অথচ কক্সবাজার আদালত প্রাঙ্গণে নেই কোনো পাবলিক টয়লেট। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই স্থানে পাবলিক টয়লেট না থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়ছে সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে নারীরা।

একটি সীমানার মধ্যেই কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তর রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালত, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, জেলা নির্বাহী অফিসার, হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়। এ সকল কার্যালয়ে প্রয়োজনে প্রতিদিন কক্সবাজার জেলার প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে কয়েক হাজার মানুষ আসে।

কিন্তু আদালত প্রাঙ্গণের মধ্যে কোনো পাবলিক টয়লেট না থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বিচার প্রার্থী ও সেবা গ্রহীতাদের। টয়লেট ব্যবহারের প্রয়োজন হলে তাদেরকে ধরনা দিতে হয় আইনজীবীদের বার ভবণের টয়লেটে। আইনজীবীদের টয়লেট ব্যবহারের জন্য তাদের অনুরোধ করতে হয়। এক্ষেত্রে বেশি বিপাকে পড়ে নারীরা। অনেকে মুখ ফুটে তার সমস্যার কথা বলতেও পারে না।

এখানেও প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের যাতায়াত রয়েছে। পাবলিক টয়লেট না থাকায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অনেকেই। এখানকার প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কর্মকাণ্ড নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে ভুক্তভোগীরা।

একজন বিচারপ্রার্থী নারী বলেন,‘আমি টেকনাফ থেকে কক্সবাজার আদালতে আসি এখানে দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করছি। হঠাৎ আমার টয়লেটে যাওয়ার প্রয়োজন হয়। কিন্তু অনেক খুঁজেও কোনো পাবলিক টয়লেট পেলাম না। এটা খুবই দুঃখজনক।’

একজন ভুক্তভোগী বলেন, আজকাল অনেকেরই ডায়াবেটিস রোগ দেখা দিচ্ছে। এতে করে ঘন ঘন প্রস্রাবের বেগ আসে। ঘর থেকে বের হলে টয়লেটের টেনশনে আরও ঘন ঘন প্রস্রাবের বেগ আসে। এজন্য কতোটা সমস্যায় পড়তে হয় তা ভুক্তভোগী ছাড়া কেউই বুঝবে না।

একজন ব্যবসায়ী জানান, এই আদালতের চার পাশে পাবলিক টয়লেট না থাকায় অনেক নিরীহ সেবাপ্রার্থীগণ নিরুপায় হয়ে খোলা আকাশে জনসম্মুখ প্রস্রাব সেরে ফেলে আবার সন্ধ্যা হলে অনেকে প্রকৃতির ডাকরপড়লে তাও সেরে ফেলে। এরপরে দুর্গন্ধ বাতাসে সাধারণ মানুষের নাকে যাচ্ছে।

শিক্ষানবিশ আইনজীবী রাজিব দাশ রাজু জানান, পাবলিক টয়লেট না থাকার ফলে বিচারপ্রার্থীগণ প্রকৃতি ডাকে সাড়া দিতে ছুটাছুটি করে অপারগ হয়ে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মার্কেটের পাশে খালী জায়গায় পুরুষ মানুষ কোন মতে কাজ সেরে যাচ্ছে কিন্তু নারীর পক্ষে অসম্ভব ব্যাপার। তাছাড়া এখানে অনেকে খাবারের দোকানে নাস্তা খেতে বসে কিন্তু দুর্গন্ধের জন্য অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

এডভোকেট শওকত বেলাল বলেন, ‘আমাদের আইনজীবীদের জন্য বার ভবণে টয়লেট ব্যবহার করার ব্যবস্থা আছে অথচ বিচারপ্রার্থীদের জন্য নাই। আদালত প্রাঙ্গণে একটা পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা খুবই জরুরি এবং সময়ের দাবী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •