cbn

আব্দুর রহমান খান

 

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে অবরুদ্ধ কাশ্মীরের নারীরা তাদের অধিকার আদায়ের চ্যালেঞ্জ জানিয়ে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারতীয় দখলদার বাহিনীর অত্যাচার নির্যাতনের বিরুদ্ধে।

এ উপলক্ষ্যে “কাশ্মীরি নারীরা নায় বিচারের জন্য চীৎকার করছে ”- এ শ্লোগান নিয়ে কাশ্মীর ইন্সিটিউট অফ ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন্স এবং বিশ্ব মুসলিম কংগ্রেস যৌথভাবে এক ওয়েবিনারের আয়োজন করে ।

জাতিসঙ্ঘ মানবাধিকার কাউন্সিল -এর ৪৬ তম অধিবেশনের সাথে সমন্তরালভাবে কাশ্মীরের এ ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বিশিষ্ট মানবাবাধিকার প্রবক্তা, আইনজীবী ও শিক্ষাবিদগণ অংশ নিয়ে কাশ্মীরি নারীদের দুর্দশা এবং নিপীড়নের কথা তুলে ধরেন। ।

তারা বলেছেন, বিশ্ব নারী দিবসে “ চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করা”র বিষয়ে এবারের প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কাশ্মীরের নারীরা কাশ্মীরিদের ওপর অন্যায় অবরোধ এবং দখলদারিত্ব

হটানোর সঙ্কল্প পুনর্ব্যক্ত করেছেন।

কাশ্মীরর নারীরা কিভাবে বছরের পর বছর মধ্যরে ভারতীয় নিরাপত্তবাহিনীর দ্বারা শারীরিক, মানসিক ও যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন তার বিবরন তুলে ধরেন বক্তাগন। একই সাথে এসব নির্যাতন ও বর্বরাতার বিরুদ্ধে কাশ্মীরী নারীদের সাহসী আন্দোলনের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয়।

আলোচকগণ আর বলেছেন, অবৈধ দখলদার ভারতীয় নিরপত্তাবাহিনির নির্যাতনের কবল থেকে কাশ্মীরি নারীদের মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্তর্জাতিক বিবেক জাগ্রত করার লড়াই চালিয়ে যাবার শপথ গ্রহণ করেছেন কাশ্মীরের নারীরা।

এদিকে, কাশ্মীরের মানবাধিকার নেতৃবনৃন্দ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে আহবান জানিয়ে বলেছেন, তারা যেনো কাশ্মীরের নারীদের অধিকার ও মার্যাদার প্রতি বিশেষ নজর দেয়।

এ উপলক্ষ্যে, ইন্টারন্যাশনাল ফোরাম ফর জাস্টিস হিউম্যান রাইটস জম্মু-কাশ্মীর এর চেয়ারম্যান আহসান উত্তো স্বামী বা সন্তান হত্যা বা কারা নির্যাতন ভোগ করছেন কাশ্মীরের এমন চারজন নারীর দুর্দশার প্রতিচ্ছবি বর্ণনা করে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন জাতিসংঘ নিরাপত্তা কাউন্সিল, জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়নকে।

আহসান উত্তো দুখ: করে বলেছেন, বিশ্ব বিবেক কাশ্মিরিম নারীদের দুর্দশার ব্যাপারে এখন উদাসীন হয়ে রয়েছে।

কাশ্মীরের নারীরা ধর্ষিতা হচ্ছেন, খুন হচ্ছেন, কারাগারে নিক্ষিপ্ত হচ্ছেন,ঘরে বা বাইরে রাস্তায় নিরাপত্তাভিনীর হাতে নির্যাত্তনের শিকার হচ্ছেন। শুধু তাই নয়, স্বামী হত্যা, গুম বা কারাবন্দী হলে গোটা পরিবারের বোঝা নারীর ঘাড়েই চাপছে। নারিশের আ দুর্দশা কোন দৈব দুর্বিপকের কারণে নয়; এত কাশ্মীরিদের স্বাধীনতা সংগ্রামকে স্তব্দ করে দিতে রাষ্ট্রীয় নির্যাতনের নীতির ফল।

এদিকে আজাদ জম্মু কাশ্মীরে নারীরা বুরহান্ণ ওয়ানি চক এলাকায় প্রধান সড়ক দখল করে বক্ষভ প্রদর্শন করেছে। আন্তএর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে তারা একটি মিছিল বের করে কাশ্মীরি নারীদের উপর পরিলাচিত ধারাবকাহিক নির্যাতনের ব্যাপারে বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষন করেছে।

এ উপলক্ষ্যে আজাদ জম্মু কাশ্মীরে প্রেসিডেন্ট সারদার মাসুদ খান এবং প্রধানমন্ত্রী রাজা ফারুক হায়দার নারীদের দু’টি সমাবেসে অংশ নেন।

এও সময় নির্যতনের শিকার কাশ্মীরিরী নারীদের ছবি সম্বলিত ব্যানার বহন করে যাতে লেখা ছিল “আন্তর্জাতিক নারী দিবসে কাশ্মীরি নারীরা মুক্তি চায়”।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •