মো.ফারুক,পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার টেটং ইউপির নির্বাচন আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নৌকার মনোনীত প্রার্থী হিসাবে সাবেক চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীর নাম ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় আ’লীগের দপ্তর সেল। এছাড়াও ইতোমধ্যে চেয়ারম্যান পদে আরো ৮ প্রার্থী মনোনয়ন ফরম ক্রয় করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়। এছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে বেশ কয়েকজন ইউপি সদস্য হিসাবে মনোনয়ন ফরম নিয়ে নির্বাচনী গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছে। শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করতে উপজেলা ও থানা প্রশাসন থেকেও নেয়া হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত এমন তথ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে টেটং ইউপিতে কোন কেন্দ্রে কত ভোট তা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১ম দাপের নির্বাচনে টেটং ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ ইউপিতে কেন্দ্র রয়েছে ৯টি।

১নং ওয়ার্ডের জোম পাড়া, পূর্ব রিজার্ভ পাড়া, বকসু মুরা, মাল পাড়া, মধ্য রিজার্ভ পাড়া, মাদ্রাসা পাড়া ও হাবিব পাড়ার কেন্দ্র হচ্ছে বটতলী শফিকিয়া মাদ্রাসা। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২০৪০জন।

২নং ওয়ার্ডের আলিঙ্গ্যা কাটা, নতুন পাড়া, পন্ডিত পাড়া, মধু হজির পাড়া, শের আলী মাস্টার পাড়া ও হাজীর পাড়ার কেন্দ্র হচ্ছে দুরুল কোরআন কাসেমুল উলুম মাদ্রাসা। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২০৬১জন।

৩নং ওয়ার্ডের ওয়াজ খাতুন পাড়া, কাছাড়ী পাহাড়, খলিফার মুরা, গুদি কাটা, ফজুর মোরা, বাজার পাড়া ও খুনির ডিপু, মৌলভী কামাল উদ্দিন পাড়া ও সাতকানিয়া মোড়ার কেন্দ্র টেটং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২০২৫জন।

৪নং ওয়ার্ডের কাটা পাহাড়, কেরণ ছড়ি, চৌকিদার পাড়া, ছন খোলার ঝুম, লম্বাখালী-মধুখালী ও হাছানের ঝুমের কেন্দ্র পূর্ব টেটং বনকানন এশায়াতুল উলুম জুনিয়র মাদ্রাসা। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২১৫৫জন।

৫নং ওয়ার্ডের গর্জনিয়া পাড়া, জাইন্যার মুড়া, জালিয়া চাং, দরগা মুড়া ও পুরাদিয়ার কেন্দ্র টেটং ইউপির কার্যালয়। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ১৮০৮জন।

৬নং ওয়ার্ডের কাদির পাড়া, কোটা পাড়া, দক্ষিণ পাড়া, পশ্চিম পাড়া, পেন্ডার পাড়া ও সিকদার পাড়ার কেন্দ্র হচ্ছে নাপিতখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ১৯৬০জন।

৭নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়া, মাঝের পাড়া, মৌলভী পাড়া, রমিজ পাড়া ও হাজির পাড়ার কেন্দ্র হচ্ছে সোনাইছড়ি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ১৯৯৯জন।

৮নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়ার অংশ, ভেলুয়ার পাড়া অংশ, হিরাবুনিয়া উত্তর পাড়া ও মৌলভী মশরফ আলী পাড়া, হিরাবুনিয়া দক্ষিণ পাড়া ও কইড়ার পাড়ার কেন্দ্র হচ্ছে পশ্চিম সোনাইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২১৪৭জন।

৯নং ওয়ার্ডের ধনিয়া কাটার পূর্ব পাড়া, ধনিয়া কাটার পশ্চিম পাড়া (ভেলুয়ার পাড়ার অংশ), মিয়াজি ঘোনা পূর্ব পাড়া ও মিয়াজি ঘোনা পশ্চিম পাড়ার কেন্দ্র সোনাইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ কেন্দ্রে নারী পুরুষ মিলে সর্বমোট ভোটার সংখ্যা ২৪১৭জন।

এছাড়াও সংরক্ষিত ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে ৬১২৬, ৪,৫ ও ৬ নং ৫৯২৩ এবং ৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডে ৬৫৬৩ জন ভোটার তাদের ভোট প্রয়োগ করবেন।

জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, একটি মামলা দিয়ে আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় আ’লীগ সব বিবেচনা করে আমার উপর আস্তা রেখেছে। আমিও সাধারণ জনগণের আস্তা রক্ষা করতে বাংলাদেশ আ’লীগ ও সহযোগি সংগঠনের সকল নেতাকর্মী এবং সাধারণ জনগণকে সাথে নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আসনটি উপহার দিব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •