আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:
২০০১ সালে রাঙামাটিতে বোমা বিস্ফোরনের ঘটনার মূলহোতা জেএমবি কয়েদী গালিবকে ১০ বছরের সশ্রম দন্ডাদেশ প্রদান
করেছে রাঙামাটির আদালত। সোমবার দুপুরে রায় ঘোষণার সময় পুলিশী পাহারায় আসামি মোঃ শামীম হোসেন গালিব আদালতে উপস্থিত ছিলো। দন্ডপ্রাপ্ত এই জেএমবি সদস্য বিগত সাড়ে ১৫ বছর মতো কারান্তরীণ রয়েছেন। বিগত ২০০১ সালে সারাদেশের ন্যায় রাঙামাটি শহরের হোটেল ড্রীমল্যান্ডে বোমা বিস্ফোরনের ঘটনায় জেএমবি সদস্য গালিবকে প্রধান আসামি করে রাঙামাটিতে বিস্ফোরণ আইনে মামলা হয়েছিলো।
আজ সোমবার রাঙামাটির বিচারক বিজ্ঞ যুগ্মজেলা ও দায়রা জজ মোঃ সাইফুল এলাহি এই দন্ডাদেশ প্রদান করেছেন বলে জানান পিপি মোঃ রফিকুল ইসলাম। তিনি জানিয়েছেন, ২০০১ সালে সারাদেশের ন্যায় রাঙামাটি শহরেও বিস্ফোরনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় একমাত্র আসামি গালিবের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামিকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন বিচারক।
রাঙামাটি বারের সিনিয়র আইনজীবি মোখতার আহাম্মেদ জানিয়েছেন, ২০০১ সালে রাঙামাটি শহরের হোটেল ড্রীমল্যান্ডে বিস্ফোরনের মামলায় গালীব একমাত্র আসামি ছিলেন।
আসামিগালিব ইতোমধ্যেই প্রায় সাড়ে ১৫ বছর কারাবন্দি ছিলেন। আদালত সূত্র জানিয়েছে, কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামি (জেএমবি কয়েদী নং-৬৬০৭/এ) মোঃ শামীম হোসেন গালিব প্রকাশ সাইফুল ইসলাম ওরফে গালিব সাতক্ষীরা জেলার ইটাগাছা এলাকার মোঃ তমিজ উদ্দিনের ছেলে।
নজীরবিহীন নিরাপত্তা বলয়ের মাধ্যমে আসামিকে সোমবার বেলা ১১টায় আদালতে হাজির করা হয়। দুপুরে রায় ঘোষণার পরপরই তাকে রাঙামাটির আদালত চত্ত্বর থেকে আবারো সামনে পেছনে পুলিশী স্কট দিয়ে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •