মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

গত শনিবার ১৩ মার্চ পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ৮৪জন। আক্রান্তদের মধ্যে ৮৩ জন করোনা রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন।মৃতদের মধ্যে ১০ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী। আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার ১’৩৬%।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. সাকিয়া হক এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত শনিবার ১৩ মার্চ পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলা ২ হাজার ৯২০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে। ৩৩৯ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী সহ মোট ৯২৫ জন করোনা রোগী নিয়ে উখিয়া উপজেলা দ্বিতীয় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। ৯৫ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী সহ মোট ৫৬১ জন করোনা রোগী নিয়ে টেকনাফ উপজেলা তৃতীয় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। ৫৩৪ জন করোনা রোগী নিয়ে চকরিয়া উপজেলা চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। ৪৩৫ জন করোনা রোগী নিয়ে রামু উপজেলা পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে। ৩৯৩ জন করোনা রোগী নিয়ে চকরিয়া উপজেলা ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে। ২২০ জন করোনা রোগী নিয়ে পেকুয়া উপজেলা সপ্তম অবস্থানে রয়েছে। ৯৬ জন করোনা রোগী নিয়ে কুতুবদিয়া উপজেলা অষ্টম অবস্থানে রয়েছে।

কক্সবাজার জেলায় করোনা ভাইরাসে ৬ হাজার ৮৪জন আক্রান্তদের মধ্যে ৫ হাজার ৬১৩ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৯২’২৬%। আক্রান্তদের মধ্যে গত শনিবার ১৩ মার্চ পর্যন্ত হোম আইসোলেসনে রয়েছেন ২৭১ জন, প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেসনে রয়েছেন ১০৩ জন। তারমধ্যে, কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল আইসোলেসনে রয়েছেন ১৯ জন। কক্সবাজার জেলায় স্থানীয় জনগণের জন্য রয়েছে ১০ টি আইসোলেসন সেন্টার এবং রোহিঙ্গা শরনার্থীদের জন্য ক্যাম্পে আইসোলেসন সেন্টার রয়েছে ১৮ টি।

এদিকে, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে একই সময় পর্যন্ত সন্দেহজনক করোনা রোগীর নমুনা টেস্ট করা হয়েছে মোট ১ লক্ষ ১২ হাজার ১৮৯ জনের। তারমধ্যে, কক্সবাজার জেলার নাগরিকদের নমুনা ৬৪ হাজার ৭১ জনের। রোহিঙ্গা শরনার্থীদের নমুনা ৩২ হাজার ২০২ জনের। চট্টগ্রাম জেলার নাগরিকদের নমুনা ১০ হাজার ২৩১ জনের এবং বান্দরবান জেলার নাগরিকদের নমুনা ৫ হাজার ৬৮৫ জনের।

এদিকে, কক্সবাজার জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আবার হু হু করে বাড়ছে। রোববার ১৪ মার্চ কক্সবাজার জেলায় মোট ১৬ জন করোনা রোগী সনাক্ত করা হয়েছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ৪৬৫ জনের নমুনা টেস্ট করে ১৬ জনের টেস্ট রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া যায়। বাকী ৪৪৯ জনের নমুনা টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও সংক্রামক ব্যাধি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. শাহজাহান নাজির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আক্রান্তদের মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১০ জন, উখিয়া উপজেলায় ২ জন, টেকনাফ উপজেলায় ১ জন এবং রোহিঙ্গা শরনার্থী ৩ জন। গত ১৩ মার্চও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ৩৬৫ জনের নমুনা টেস্ট করে ১৪ জনের টেস্ট রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া যায়। যা স্বাস্থ্য বিভাগ সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ভাবিয়ে তুলেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •