অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গা এলাকার আলোচিত লেডি গ্যাং লিডার তাহমিনা সিমি ওরফে সিমরান সিমিকে আটক করেছে পুলিশ। বাসায় ঢুকে এক তরুণীকে পিটিয়ে জেলে যাওয়ার ৬ মাসের ব্যবধানে আরেক তরুণীকে মৃত্যুর হুমকির পাশাপাশি সহযোগীকে দিয়ে মার খাওয়ানোর ঘটনায় তাকে আটক করা হয়। শনিবার (১৩ মার্চ) দুপুরে নিজ বাসা থেকে সিমিকে পুলিশ আটক করেন। অভিযুক্ত সিমি খুলনার বাগেরহাটের কামাল হোসেনের মেয়ে। তবে তারা দীর্ঘদিন ধরে নগরীর ইপিজেড থানার সিমেন্ট ক্রসিং বড়বাড়ি এলাকায় পরিবারের সাথে বসবাস করছেন।
জানা যায়, শনিবার ফেসবুকসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও’র জেরে সিমিকে আবারো আটক করা হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, নেভাল এলাকায় এক তরুণীকে বেধড়ক চড় থাপ্পড় দিচ্ছে সিমি ও তার এক সহযোগী। ওই সময় সিমিকে বলতে শোনা যায়, ‘তুই আমাকে চিনস? আমি বললে, এখান থেকে তোকে কেউ বাঁচিয়ে নিয়ে যেতে পারবে না।’ পতেঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান বলেন, ‘ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর আমরা দুপুরে নিজ বাসা থেকে সিমিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করি। ওই ঘটনার ভিকটিম ওয়াসিকা থানায় বাদী হয়ে রাতে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে মামলা দায়ের করেন।
সেই মামলার একমাত্র আসামি হিসেবে সিমিকে আমরা গ্রেপ্তার করেছি। জানা যায়, পতেঙ্গা এলাকার বাসিন্দা তাহমিনা আক্তার সিমি ছোটকাল থেকেই ডানপিটে ছিলো। তবে ছয় বছর আগে বাবা কামাল হোসেনের মৃত্যুর পর স্থানীয় একটি কলেজের এই শিক্ষার্থী বেপরোয়া হয়ে উঠে। এরমধ্যে গত বছরের ২৪ আগস্ট বাসায় ঢুকে এক তরুণীকে বেধড়ক মারধরের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর আলোচনায় আসেন এই তরুণী। ওই ঘটনার দায়ের করা মামলার জেরে সেসময় আটক হয়ে কারাগারে গিয়েছিলেন এই লেডি কিশোর গ্যাং নেত্রী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •